সদ্য সংবাদ

বিভাগ: বিশ্ববিচিত্রা

বৃটেনের কার্ডিফ শহরে নব নির্মিত শহীদ মিনারে প্রথম বারের মত ফুলেল শ্রদ্ধাঞ্জলি জানিয়ে এক নব ইতিহাসের সূচনা করেছে ওয়েলস বাংলাদেশ কমিউনিটি

কমলকুঁড়ি ডেস্ক

32

আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙ্গানো একুশে ফেব্রুয়ারী আমি কি ভূলিতে পারি. একুশ আমাদের অহংকার একুশ আমাদের আত্তপরিচয়. একুশের পথ ধরে আমরা প্রবাসে বহণ করে চলছি বাংলাদেশের লাল বৃত্ত সবুজ পতাকা; গৌরব ও গর্বের সাথে উচ্চারণ করছি বাংলা আমার দেশ. বাংলা আমার ভাষা.১৯৯৯ সালে ইউনেস্কো কতৃক স্বীকৃতি লাভের পর ২০০০ সাল থেকেই বিশ্ববাসীর ১৮৮টি দেশ আমাদের ২১ শে ফেব্রুয়ারি মহাণ শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসাবে পালন করে আসছে এই গৌরব প্রবাসী বাঙালীদের এই গৌরব বাঙালী জাতির..অমর একুশ ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় ও ভাবগাম্ভীর পরিবেশে নানা অনুষ্টানের মধ্য দিয়ে বৃটেনের ওয়েলসের রাজধানী কার্ডিফ শহরের গ্রেঞ্জমোর পাকে কাউন্সিলের প্রদত্ত জায়গায় কমিউনিটির নিজস্থ অর্থায়নে নির্মিত শহীদ মিনারে ফুলেল শ্রদ্ধাঞ্জলি জানিয়ে প্রথম বারের মত এক নব ইতিহাসের সূচনা করেছে ওয়েলস বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন ইউকে.।একুশের গান গেয়ে প্রথম প্রহরে র‍্যালী সহকারে বাংলাদেশের হাইকমিশনার. কার্ডিফ কাউন্টি কাউন্সিলের লড মেয়র. কাউন্সিল লিডার. ওয়েলস এসেম্বলি মিনিষ্টার. কার্ডিফের লেবার পার্টি কনজার্ভেটিভ পার্টি. লিবারেশন ডেমোক্রেট পার্টির কাউন্সিলারবৃন্দ ও ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাংগুয়েজ মনুমেন্ট তথা শহীদ মিনার ফাউন্ডার ট্রাষ্ট কমিটি সহ বাংলাদেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক যুব সংগঠন. সামাজিক সাংস্কৃতিক ও কমিউনিটি সংগঠনের পক্ষ থেকে স্কুল ছাত্র ছাত্রীরা একে একে শহীদ মিনার বেদীতে ফুলেল স্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হয়.। মনুমেন্ট তথা শহীদ মিনার ফাউন্ডার ট্রাষ্ট কমিটির চেয়ারম্যান আনোয়ার আলীর সভাপতিত্তে ও মনুমেন্ট তথা শহীদ মিনার ফাউন্ডার ট্রাষ্ট কমিটির জেনারেল সেক্রেটারী মোহাম্মদ মকিস মনসুর এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন প্রধান অতিথি বামিংহামের সহকারী হাইকমিশনার নাজমুল হক. কাউন্সিলার দিলওয়ার আলী. ফাউন্ডার ট্রাষ্ট কমিটির ডেপুটি চেয়ার মোহাম্মদ সেরুল ইসলাম. ট্রেজারার আনহার মিয়া.ট্রাষ্টি শেখ তাহির উল্লাহ. ট্রাষ্টি মোহাম্মদ মুজিব. ট্রাষ্টি আসাদ মিয়া. ট্রাষ্টি এম এ সালাম বুলবুল ও ট্রাষ্টি শামীম আহমদ প্রমুখ.। পরদিন ২১ শে ফেব্রুয়ারি কাডিফের বিভিন্ন স্কুলের বিপুল সংখ্যক ছাত্র ছাত্রীদের অংশগ্রহণে নব প্রজন্মের মাসুদা আলী ও নব প্রজন্মের নাদিয়া ইসলামের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত পোগ্রামে প্রধান অতিথি কার্ডিফের লড মেয়র রাইট অনারেবল ডায়ান রিস.কাউন্সিল লিডার হিউ টমাস. মরফুড মেরেডিথ ওয়েলস এসেম্বলির মেম্বার জুলি মগান সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। সভায় কাউন্সিলার ফাউন্ডার ট্রাষ্টি লাইফ মেম্বার. ফ্রেন্ডস অব মনুমেন্ট সহ সোয়ানসী. নিউপোর্ট ও কাডিফ শহরের অন্যান্য বিশিষ্টজনেরা উপস্থিত ছিলেন.। উভয় অনুষ্ঠানেই ভাষা শহীদানদের প্রতি স্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়.। অনুষ্ঠানে বক্তারা ভাষার গ্রুরুত্ত ও ইউনেস্কো কতৃক আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের সীকৃতি প্রদান সহ নানা ইতিকথা তুলে ধরেন। ওয়েলসের মাটিতে ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাংগুয়েজ মনুমেন্ট তথা প্রথম শহীদ মিনার প্রতিষ্টায় যারা অক্লান্ত পরিস্রম করেছেন ফাউন্ডার ট্রাষ্ট কমিটি সহ সকল অবদানকারীদেরকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তারা অনেক ত্যাগ, তিতিক্ষার মধ্য দিয়ে একটি জাতি তার কাংক্ষিত লক্ষ্যে পৌছতে পারে- বাঙালির স্বাধীনতার ইতিহাস ও অমর একুশ তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।’ আমাদের এখানকার বেড়ে উটা নব প্রজন্মের সন্তানদের সামনে ও বৃটিশ এবং ওয়েলস নাগরিকবৃন্দকে আমাদের ভাষা. কৃষ্টি. সংস্কৃতি. ঐতিহ্য.সাফল্য সম্ভাবনা ও মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস এবং বাংলাদেশের অব্যাহত উন্নয়নের ও সম্ভাবনাময় বিনিয়োগের চিত্র তুলে ধরতে হবে বলে বক্তারা অভিমত ব্যাক্ত করেছেন.। এদিকে ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাংগুয়েজ মনুমেন্ট তথা শহীদ মিনার ফাউন্ডার ট্রাষ্ট কমিটির চেয়ারম্যান আনোয়ার আলী ও ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাংগুয়েজ মনুমেন্ট তথা শহীদ মিনার ফাউন্ডার ট্রাষ্ট কমিটির জেনারেল সেক্রেটারী মোহাম্মদ মকিস মনসুর সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ শহীদ মিনার প্রতিষ্টায় সহযোগিতাকারী ও দু’দিনের ঐতিহাসিক এই পোগ্রামে উপস্থিত সবাইকে আন্তরিক অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন.।।

যুক্তরাজ্যে হাজী মুজিবের সমর্থনে মতবিনিময় সভা

received_313832625901809

যুক্তরাজ্য বসবাসরত কমলগঞ্জ শ্রীমংগল নির্বাচনী এলাকার এক মতবিনিময় সভা (১৯ ডিসেম্বর) বুধবার অনুষ্ঠিত হয়। ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী আলহাজ্ব মুজিবুর রহমান চৌধুরীর সমর্থনে এ মতবিনিময় সভায় সাবেক ছাত্রদল নেতা যুক্তরাজ্য জাসাসের সিনিওর সহ সভাপতি তরিকুর রশীদ চৌধূরী শওকতের সভাপতিত্বে ও শ্রীমংগল উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক নেতা আমিরুল ইসলামের পরিচালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শ্রীমংগল উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও যুক্তরাজ্যর মিডিলসেকস বি এন পির যুগ্ম আহ্বায়ক শহিদুল হক চৌধুরী লিটন , কমলগনজ উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শেখ শামীম আহমেদ, যুক্তরাজ্য জাসাসের সভাপতি এমাদুর রহমান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, জাসাসের সাধারণ সম্পাদক তাসবির চৌধুরী শিমুল শ্রীমংগল কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি সরফরাজ সরফু , যুক্তরাজ্য জাসাসের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোতালেব লিটন , যুক্তরাজ্য জাসাসের সাংগঠনিক সম্পাদক ইমদাদুর রহমান রাহাত , সহ সাংগঠনিক সম্পাদক রুকন , শ্রীমংগল উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাসেল আহমেদ , স্চ্ছোসেবক দলের সহ সভাপতি নজরুল ইসলাম । সভায় কমলগনজ শ্রীমংগল নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য পদ প্রার্থী জনাব আলহাজ মুজিবুর রহমান চৌধুরী সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দেন বক্তারা ।

সভায় ছাত্রদল নেতা কাওসার চৌধুরী সহ গ্রেফতার কৃত সকল নেতৃবৃন্দের মুক্তির দাবি জানানো হয় । — বিজ্ঞপ্তি

যথাযোগ্য মর্যাদায় বৃটেনের কার্ডিফ বাংলা স্কুলে মহান বিজয় দিবস উদযাপিত

বদরুল মনসুর

48375493_629041864180114_6566154115318022144_n

বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা আর আনন্দঘন পরিবেশে ও যথাযোগ্য মর্যাদায় বৃটেনের ওয়েলসের রাজধানী কার্ডিফের শাহ্‌জালাল বাংলা স্কুলের উদ্দ্যোগে বাংলাদেশের মহান বিজয় দিবস পালন উপলক্ষে স্কুল সেন্টারে গত ১৬ ডিসেম্বর রোববার সকাল ১১ ঘটিকায় এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। স্কুল পরিচালনা কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ আলী আকবর এর সভাপতিত্বে এবং স্কুল পরিচালনা কমিটির সেক্রেটারি সাংবাদিক মোহাম্মদ মকিস মনসুর এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত পোগ্রামের শুরুতেই বাংলা স্কুলের ছাত্র ছাত্রীরা সমবেত কন্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা সহ বিজয় দিবসের ওপর কবিতা পাঠ ও আলোচনায় অংশ নিয়ে অনুষ্ঠানকে প্রাণবন্ত করে তুলেন.। স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা ফাইমা বেগম. শিক্ষিকা হানিয়া জাহান চৌধুরী ও শিক্ষিকা রুজি সিদ্দীকার সাবিক ব্যাস্থাপনায় আয়োজিত এই সফল অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন আক্তারুজ্জামান কুরেশী নিপু. শেখ মোহাম্মদ আনোয়ার.এস এ খান লেনিন.এম এ মান্নান. কয়সর আলী. আনকার মিয়া.আব্দুল মুমিন. আব্দুল মোত্তালিব.বেলাল আহমদ ও মিজানুর রহমান সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ. পবিত্র কোরআান থেকে তেলাওয়াত করেন স্কুলের ছাত্র আড়ীব আলী. কবিতা আবৃত্তিতে অংশ নেন সাফা.তামিম. আমরিন আমিনা. শাকিল. জুমানা.ইয়াসিন.সামিরা. রাউফ.সালমান. জেইনা.আমিরা.আবিদা. জুনায়েদ. জাহিন. জুমাইয়া.তানিশা. ছাফা. তামজিদ. ও আদিল সহ স্কুলের অন্যান্য ছাত্র ছাত্রীবৃন্দ.।।সভায় বক্তারা শাহজালাল বাংলা স্কুলের পক্ষ থেকে মহান বিজয় দিবস অত্যন্ত সফলতার সাথে পালন করার জন্য ম্যানেজমেন্ট কমিটির সবাইকে বিশেষ করে স্কুলের সেক্রেটারি ও শিক্ষিকা বৃন্দ এবং সকল ছাত্র-ছাত্রীকে অশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে সবার নিরবিচ্ছিন্ন সহযোগীতায় প্রিয় মাতৃভাষা প্রজন্ম থেকে প্রজন্মতর বেঁচে থাকুক এই কামনা সহ সবাইকে বিজয়ের শুভেচ্ছা জানান। স্কুল ম্যানেজমেন্ট কমিটির সেক্রেটারী মোহাম্মদ মকিস মনসুর ও সভার সভাপতি আলহাজ্ব আলী আকবর সমাপনী বক্তব্যে নব প্রজন্মের সন্তানদের হাতে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরার লক্ষে সবাইকে এক যুগে কাজ করার আহবান জানিয়ে বলেন আমাদের দেশপ্রেমের অনুভূতি, চিন্তা-চেতনা ভবিষ্যত প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দিতে হবে। বিশ্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। এ উন্নয়নে প্রবাসীদেরও ভূমিকা রয়েছে। বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা যাতে বজায় থাকে সেজন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে স্ব স্ব অবস্থান থেকে কাজ করতে হবে। প্রবাসীদের প্রত্যেককেই এক একজন ‘রাষ্ট্রদূত’ হিসেবে ভূমিকা রাখতে হবে। আমাদের উচিৎ নব প্রজন্মের সন্তানদের হাতে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরার লক্ষে এক যুগে কাজ করা। আমাদের নব প্রজন্মের সন্তানদের বাংলাদেশের ইতিহাস ঐতিহ্য ও অজন এবং বাংলাভাষা সম্মন্দে সম্মক ধারনা প্রদানের লক্ষে আরও জড়ালো ভৃমিকা রাখতে হবে। বংশের ধারায় আমাদের সন্তানরাও যেনো মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আর বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ করে সারাজীবন মানুষের সেবায় আত্মোৎসর্গ করতে পারে। প্রজন্ম যাতে কখনোই বিভ্রান্ত না হয় সে জন্য মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ছড়িয়ে দিতে হবে আমাদের প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে. এই হোক বিজয় দিবসে আমাদের দীপ্ত শপথ ।

চালক ছাড়াই চলল ট্রেন ৯০ কিলোমিটার!

কমলকুঁড়ি ডেস্ক

51চালক ছাড়াই দ্রুতগতিতে প্রায় এক ঘণ্টায় ৯০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেয়ার পর রেললাইন থেকে ছিটকে পড়েছে একটি ট্রেন। মালবাহী এই ট্রেনের চালক ছাড়া দ্রুতগতিতে ছোটার ঘটনা ঘটেছে অস্ট্রেলিয়ায়। তবে রেললাইন থেকে উল্টে পড়লেও কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি।

ফরাসী বার্তাসংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অস্ট্রেলিয়ার ২৬৮ ওয়াগনের চালক ক্যাব থেকে নেমে ট্রেনের যান্ত্রিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখছিলেন। এসময় হঠাৎ ট্রেনটি ধীর গতিতে ছুটতে শুরু করে। পরে ধীরে ধীরে এর গতি বাড়তে থাকে। রেললাইন থেকে ছিটকে পড়ার সময় ট্রেনের গতি বেড়ে দাঁড়ায় ঘণ্টায় ১১০ কিলোমিটারে। দেশটির খনি জায়ান্ট কোম্পানি বিএইচপি পশ্চিম অস্ট্রেলিয়ার পিলবারার বন্দরনগরী হেডল্যান্ডে পৌঁছার আগে ট্রেনটিকে লাইনচ্যুত করার সিদ্ধান্ত নেয়। বন্দরের কাছে ট্রেন থামানোর জন্য গতিপ্রতিরোধক বসায় বিএইচপি। হেডল্যান্ডে ট্রেনটি লাইনচ্যুত হয়ে আঁছড়ে পড়ে। এতে রেললাইনের প্রায় দেড় হাজার মিটার ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। দ্য ওয়েস্ট অস্ট্রেলিয়ার প্রকাশিত ছবিতে সোমবারের এই দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ট্রেনের কিছু ওয়াগন উল্টে আছে। ট্রেনটিতে করে লৌহ আকরিক পরিবহন করা হচ্ছিল। বিশ্বের লৌহ আকরিকের অন্যতম বৃহৎ উৎস অস্ট্রেলিয়া। বুধবার বিএইচপি বলছে, ট্রেনটি উদ্ধার ও লাইন মেরামত করতে প্রায় ১৩০ জন কর্মী কাজ করছেন। তবে ওই রেললাইন স্বাভাবিক হতে আরো এক সপ্তাহ সময় লাগতে পারে।

ছেলের জন্য দেখা পাত্রীকে বিয়ে করলেন বাবা

ছেলের জন্য দেখা পাত্রীকে বিয়ে করলেন বাবা
  ডেস্ক  রিপোর্ট

৬৫ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ বিয়ে করেছেন তার ছেলের জন্য ঠিক করা ২১ বছর বয়সী পাত্রীকে। সম্প্রতি অদ্ভূত এ ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের বিহারের পাটনার সমশটিপুর জেলায়। জানা গেছে, ওই ব্যক্তির নাম রোশান লাল, থাকেন পাটনা শহরেই। তিনি তার ছেলের জন্য পাত্রী খুঁজছিলেন এবং অবশেষে ২১ বছর বয়সী স্বপ্নার সঙ্গে বিয়ের কথা পাকাপাকিও হয়। পাত্রীও একই এলাকায় থাকতেন।

দুই পরিবারের সম্মতিতেই রোশান লালের ছেলের সঙ্গে স্বপ্নার বিয়ে ঠিক হয়। মহাধুমধামে শুরু হয় বিয়ের প্রস্তুতি। দুই পরিবারই আমন্ত্রণপত্র বিলি করে। কথামতো বিয়ের দিন হলে উপস্থিত হন অতিথিরাও। তবে নববধূ আশা নিয়ে অপেক্ষা করলেও বরের দেখা আর মেলে না। পরে খোঁজাখুঁজি শেষে জানা যায়, বর তার প্রেমিকাকে নিয়ে পালিয়েছেন।

ছেলে-মেয়ের পরিবারের কেউই বিষয়টি জানতেন না। বিয়ের অনুষ্ঠানে অসংখ্য অতিথির সামনে দুই পরিবারই লজ্জায় পড়েন। রোশান লাল কনের মা-বাবাকে জিজ্ঞাসা করেন, এখন কী করা যেতে পারে? স্বপ্নার মা-বাবা তাদের সম্মান বাঁচাতে চান এবং বলেন বিয়ের অনুষ্ঠান বন্ধ করা যাবে না। অবশেষে তারা রোশান লালকে অনুরোধ করেন, তিনি যেন তাদের কন্যাকে বিয়ে করেন।

চিন্তিত রোশান লাল প্রথমে রাজি না হলেও পরে স্বপ্নাকে বিয়ে করতে রাজি হন। এ পরিস্থিতি দেখে আমন্ত্রিত অতিথিরাও অবাক হয়ে যান!

যুক্তরাজ্যে সংবর্ধিত হলে কালী প্রসাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক মতিউর রহমান চৌধুরী

যুক্তরাজ্য সংবাদদাতা

imageমৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী মুন্সীবাজার কালী প্রসাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক মতিউর রহমান চৌধুরী যূক্তরাজ্য ভ্রমনে আসলে কমল গঞ্জ সমতি ও যূক্তরাজ্যে বসবাসরত তাঁর গুণমুগ্ধ ছাত্র-ছাত্রীদের পক্ষ থেকে এক বিশাল সম্বর্ধনার আয়োজন করা হয়।

আবুল ফজল উচ্চ বিদ্যালয় ও হুরূন্নেছা কলেজের প্রতিষ্টাতা অধ্যক্ষ ফখর উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও আব্দুল মুহিত ও ফায়সল চৌধুরীর যৌথ সঞ্চালনায় বার্মিংহামের স্মলহীথ এলাকায় অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী মিঠাই ঘর রেস্তোরায় আয়োজিত বিশাল অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বার্মিংহাম বাঙালি কমিউনিটির  গৌরব ও বিশিষ্ট ব্যক্তি জননেতা কাউন্সিলর সাদেক মিয়া সমছু। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কভেনটি বাঙালি কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব কালী প্রসাদ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র ও সিলেট সরকারি কারিগরি মহাবিদ্যালয়ের (পলিটেকনিক) এর  প্রাক্তন শিক্ষক  মোঃ আব্দুল মুকিত চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তি ও সমাজ সেবক যথাক্রমে হাবিবুর রহমান, মাহবুব-উল-আলম চৌধুরী মাখন, সৈয়দ জমশেদ আলী, কামাল আহমদ, মোস্তফা কামাল বাবলু ,জুম্মা আহমদ লিটু ও সুয়ানসি থেকে আগত হাবিবুর রহমান মকবুল।

image.png
 প্রথম পর্বে অতিথিবৃন্দের আসন গ্রহণ শেষে দ্বিতীয় পর্বে জাকারিয়া চৌধুরী দুয়েল এর কুরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে মূল অনুষ্ঠান শুরু হয়। প্রাক্তন শিক্ষক মতিউর রহমান চৌধুরীর জীবনী পাঠ করে শুনান জাকারিয়া রহমান সুমন এবং মানপত্র পাঠ করেন জাকের আহমদ তরফদার দিপু।  শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন লন্ডন থেকে আগত ব্যবসায়ী ও কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব গোলাম হায়দার চৌধুরী শালুক।স্মৃতিচারণ করেন রেডিং থেকে আগত বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব জনাব শাফী চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন লন্ডন থেকে আগত কালী প্রসাদ উচ্চ বিদ্যালয় এর প্রাক্তন ছাত্র  প্রাণেশ ধর, লুটন থেকে আগত মদনমোহন কলেজের সাবেক লেকচারার জনাব মুহাম্মদ আবদুল মুনিম চৌধুরী,  কালী প্রসাদ উচ্চ বিদ্যালয় এর প্রাক্তন ছাত্র ও বার্মিংহাম কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব ও সমাজসেবক  মোঃ এমদাদুর রহমান সুয়েজ। অন্যান্য বিশিষ্ট ব্যাক্তি বর্গের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শিবলী চৌধুরী, মোহাম্মদ বাবলু আহমেদ, মোশাররফ সায়েক ও ফজলে এলাহী পাপন। সংবর্ধিত অতিথিকে প্রাক্তন ছাত্র ছাত্রী  এবং কমলগঞ্জ সমিতির পক্ষ থেকে সম্মাননা ক্রেষ্ট প্রদান করা হয়।
সভাপতির সমাপনি ভাষণ আপ্যায়নের মাধ্যমে সম্বর্ধনা সভার সমাপ্তি ঘটে।

লন্ডনে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ এমপি

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে লন্ডনে “বঙ্গবন্ধু শিশু একাডেমি” যুক্তরাজ্য শাখার উদ্যোগে ৯ আগষ্ট বৃহস্পতিবার এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সাবেক চিফ হুইপ, সরকারি প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত কমিটির সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা উপাধ্যক্ষ ড. মো: আব্দুস শহীদ এমপি। প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সুলতান মাহমুদ শরীফ।

বঙ্গবন্ধু শিশু একাডেমি যুক্তরাজ্য শাখার সভাপতি শাহাজানুর রাজার সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি নজরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ -সভাপতি জালাল উদ্দিন, সহ-সভাপতি হরমুজ আলী, ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি নঈম উদ্দিন রিয়াজ, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আহাদ চৌধুরী ও মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আজমল হোসেন। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট এম এ করিম, সাবেক ছাত্রনেতা কাউন্সিলর মুজিবুর রহমান জসিম, যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি সায়েদ আহমদ সাদ, সাবেক কাউন্সিলর রহিমা রহমান, মহানগর আওয়ামীলীগ নেতা সেলিম আহমদ চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা  হাজি আব্দুর রহিম, নর্থ লন্ডন আওয়ামীলীগ সেক্রেটারি আহ্সান আহমদ, সাবেক কেটারার্স আশরাফ উদ্দিন, সেলেব্রিটি সেফ সাব্বির করিম, মুক্তিযোদ্ধা কবি সুরুজ্জামান চৌধুরী, আফসার খান সাদেক, নাসির উদ্দিন, মানবাধিকার নেত্রী সাজিয়া ¯িœগ্ধা, কমিনিটি নেতা মুজিবুর রহমান মনি, মানবাধিকার নেত্রী রুবি হক, বিবিসি ও ভয়েস অফ আমেরিকার সাবেক বাংলা প্রতিনিধি সেলিনা চৌধুরী, বাচ্চু বক্ত, জামান আহমদ, যুক্তরাজ্য ছাত্রলীগ নেতা নাজমুল ইসলাম ইমন ও মনি উদ্দিন মুজিব প্রমুখ।

বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন ও কবি সুরুজ্জামানের কোরআন তেলোয়াতের মাধ্যমে শোক সভার কার্যক্রম শুরু হয়।

প্রধান অতিথি বীর মুক্তিযোদ্ধা উপাধ্যক্ষ ড. মো: আব্দুস শহীদ এমপি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা সুলতান মাহমুদ শরীফ “বঙ্গবন্ধু শিশু একাডেমি যুক্তরাজ্য” শাখা কর্তৃক আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের এই মাসে জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে অনুষ্ঠান আয়োজন করার উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে নব নির্বাচিত কমিটির সভাপতি-সেক্রেটারি ও তাদের পরিষদকে অভিনন্দন জানান। তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন যুক্তরাজ্যে এই সংগঠন বৃটিশ বাংলাদেশী শিশু কিশোরদের- বাংলাদেশ, বাঙালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে সম্যক ধারনা দিতে সচেষ্ট থাকবে।

সংগঠনের সভাপতি সাজানুর রাজা ও সেক্রেটারি নজরুল ইসলাম যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দসহ কমিনিটির সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন

কমলগঞ্জ প্রেসক্লাবের নির্বাচন ১৭ জুলাই। ১৩টি পদে মনোনয়নপত্র দাখিল

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

Untitled-1
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ প্রেসক্লাব এর নির্বাচন আগামী ১৭ জুলাই শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে।   বুধবার (৪ জুলাই) দুপুর ১ টা পর্যন্ত ১৩টি পদে নির্বাচন কমিশনের কাছে মনোনয়নপত্র দাখিল করা হয়েছে।   এরমধ্যে সভাপতি পদে বিশ্বজিৎ রায় ও প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ।   সহসভাপতি পদে শাব্বির এলাহী, আব্দুল মুক্তাদির ও অঞ্জন প্রসাদ রায় চৌধুরী।   সম্পাদক পদে মো: মোস্তাফিজুর রহমান।   যুগ্ম সম্পাদক পদে সৈয়দ মোকাম্মেল আলী মুন্না ও এ কে শাওনেয়াজ আহমদ।   অর্থ ও দপ্তর সম্পাদক পদে রাজকুমার সোমেন্দ্র সিংহ।   প্রচার প্রকাশনা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে এস এম এবাদুল হক, ক্রীড়া ও সমাজকল্যান সম্পাদক পদে মো. শামসুর রাজা চৌধুরী।   কার্য নির্বাহী সদস্য পদে এম এ ওয়াহিদ রুলু, অলক দেব, পিন্টু দেবনাথ ও মো: শাহীন আহমেদ মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

Kamalgonj Pic T Worker Union Elction 2

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা আর কঠোর পুলিশী নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে দেশের মোট ৭টি ভ্যালিতে (অঞ্চলে) বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন রোববার অনুষ্ঠিত হয়।  সকাল ৮টা থেকে বিরতিহীনভাবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ২৩০টি চা বাগানের নিবন্ধিত নারী ও পুরুষ চা শ্রমিকরা কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি  ও সাধারণ সম্পাদক মন্ডলী, ভ্যালি কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক মন্ডলী ও বাগান পঞ্চায়েত কমিটির প্রতিনিধি নির্বাচনে ভোট প্রদান কনের। সকাল সাড়ে ১০টায় মনু-দলই ভ্যালীর শমশেরনগর চা বাগানে গিয়ে দেখা যায়, সারিবদ্ধভাবে তিনটি লাইনে নারী-পুরুষ ভোটাররা ভোট প্রদানের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন। এ কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার সহকারী উপজেলা মৎস্য অফিসার মো: আসাদ উল্ল্যাহ জানান, সকাল পৌনে ১১টা পর্যন্ত প্রায় ত্রিশ শতাংশ ভোটার ভোট প্রদান করেছেন।
বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কার্যালয় শ্রীমঙ্গলস্থ লেবার হাউজ সূত্রে জানা যায়, দেশ স্বাধীনের পর টানা ৩৪ বছর একটি পক্ষ দ্বারা চা শ্রমকি ইউনিয়ন পরিচালিত হলেও সে সময় সাধারণ চা শ্রমিকরা ভোট প্রদান করে তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করতে পারতেন না। ২০০৮ সালে সংগ্রাম কমিটি গঠণ করে ব্যাপক আন্দোলনের মাধ্যমে সে বছর প্রথমবার গণতান্ত্রীক উপায়ে চা শ্রমিকরা ২৬ অক্টোবর ভোট প্রদান করে প্রথমে পঞ্চায়েত কমিটি ও ভ্যালি কমিটির প্রতিনিধি নির্বাচন করেছিল। ২ নভেম্বর রোববার বাংলাদেশ চা শ্রমকি ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়ে। নির্বাচনে সংগ্রাম কমিটির সভাপতি মাখন লাল কর্মকার ও সাধারণ সম্পাদক রাম ভজন কৈরীর প্যানেল নির্বাচিত হয়েছিলেন।
নির্বাচিত এই কমিটি সিদ্ধান্ত গ্রহন করে পরের মেয়াদে ২০১৪ সালে সরাসরি ৯৫ হাজার ৫০০ চা শ্রমিকের ভোটে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটি নির্বাচন করেছিল। ২০১৭ সালের আগষ্ট মাসে এ কমিটির মেয়াদ শেষ হলেও নানা জটিলতায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। অবশেষে শ্রম অধিদপ্তরের মাধ্যমে চলতি বছরের ২৭ মে চা শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচনের তপশিল ঘোষণার মাধ্যমে ত্রি-বার্ষিক নির্বাচনের কার্যক্রম শুরু হয়। তপশিল অনুযায়ী রোববার (২৪ জুন) সারা দেশের ৭টি ভ্যালিতে(অঞ্চলে) সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একযোগে ভোট গ্রহন হয়।
নির্বাচনে কেন্দ্রীয় কমিটি গঠনে মাখনলাল কর্মকার ও রাম ভজন কৈরী প্যানেল ও বিজয় প্রসাদ বুনার্জি ও সীতারাম অলমিক প্যানেলে সভাপতি ও সম্পাদক মন্ডলী, শিউধনী কুর্মির নেতৃত্বে একটি সভাপতি মন্ডলী ও গীতারানী কানুর নেতৃত্বে সম্পাদক মন্ডলীল আরও একটি প্যানেলে ৪টি করে পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। একই সাথে ২৩০টি চা বাগান পঞ্চায়েত কমিটি ও ৭টি ভ্যালি কমিটিরও ভোট প্রদান করছে চা শ্রমিক ভোটাররা।
বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়ন কার্যালয় সূত্রে আর জানা যায়, বৃহত্তর সিলেট ও চট্রগ্রাম অঞ্চল মিলিয়ে সাতটি ভ্যালিতে সর্বশেষ তালিকা অনুযায়ী মোট ৯৮ হাজার ৭৫২ জন ভোটার ভোট প্রদান করছে।
এদিকে কমলগঞ্জ উপজেলার ২২টি চা বাগান ও কুলাউড়া উপজেলার চাতলাপুর চা বাগান নিয়ে মোট ২৩টি চা বাগান নিয়ে মনু-ধলই ভ্যালিতে ১৫ হাজার ৫২ টি ভোটের জন্য ভ্যালি কমিটিতে সভাপতি পদে ধনা বাউরী, সহ-সভাপতি পদে গায়ত্রী রানী ও সাধারণ সম্পাদক পদে নির্মল দাশ পাইনকা রিক্সা প্রতীকে, আবার সভাপতি পদে সীতারাম বীন, সহ-সভাপতি পদে আলোমনি রবিদাস ও সম্পাদক কুশল চাষা আম প্রতীকে নির্বাচন করছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী গোপাল নুনিয়া গোলাপ ফুল প্রতীকে ও প্রদীপ কালোয়ার কাঁঠাল প্রতীকে নির্বাচন করছেন।
সহকারী রিটার্নিং অফিসার কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক রোববার বেলা ২টায় বলেন, ৭টি ভ্যালিতে সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও সু-শৃঙ্খলভাবে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের ত্রি-বার্ষিক নির্বাচনের ভোট প্রদান অনুষ্ঠিত হয়। সার্বিক নিরাপত্তার জন্য প্রতি কেন্দ্রে আনসার সদস্যদের পাশাপাশি পুলিশও মোতায়েন করা হয়েছে।

সৌদি নারীরা প্রথমবারের মত বিশ্বকাপ স্টেডিয়ামে

 ডেস্ক রিপোর্ট

71

 ‘সেদিন সুদূর নয়-যে দিন ধরণী পুরুষের সাথে গাহিবে নারীর ও জয়’-কাজী নজরুল ইসলামের নারী কবিতার এই পংকক্তি বোধহয় সৌদি আরবের নারীরা প্রথমবার উচ্চস্বরে বলতে পারার সাহস পেল। ধর্মীয় রীতিনীতিতে আটকে রেখে দীর্ঘদিন যাবত নারীদের স্টেডিয়ামে যেতে বাঁধা দিয়ে রেখেছিল মুসলিম অধ্যুষিত দেশ সৌদি আরব। কিন্তু যুবরাজ সালমানের কল্যাণে যেন আশার আলো দেখতে পায় সে দেশের নারীরা।‘ভিশন-২০৩০’এর লক্ষ্য নিয়ে নেমেই সৌদি আরবের সংস্কৃতিতে আমুল পরিবর্তন আনেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। যার একটি ছিল, স্টেডিয়ামে বসে সৌদি নারীদের খেলা দেখতে দেওয়া। তারই আলোকে, প্রথমবার বিশ্বকাপ স্টেডিয়ামে দেখা গেলো সৌদি নারীদের।সৌদি নারীরা প্রথম স্টেডিয়ামে ম্যাচ দেখতে আসে চলতি বছরের জানুয়ারী মাসে। আল আহলি ও আল বাইতানের মধ্যকার ম্যাচটি প্রথমবারের মত মাঠে বসে উপভোগ করে সৌদি নারীরা। এবার আরো বড় মঞ্চে আবির্ভাব হলো তাদের। মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী দিনেই সৌদি আরবের ম্যাচে দেখা গেল সেদেশের নারীদের।সৌদি আরবের পতাকার রঙ্গে জিন্স, স্কার্ফ ও হিজাব পরে অনেক সৌদি নারী আসেন রাশিয়া বনাম সৌদি আরবের মধ্যকার ম্যাচটি দেখতে। সঙ্গে সৌদি আরবের পতাকাও ছিল। সেখানে তারা পুরুষদের সঙ্গে বসেই খেলা উপভোগ করেন।তেমনই একজন হলেন নাদা আলতুয়াইজরি। সৌদি আরবের নাগরিক হলেও ১২ বছর বয়স থেকে বসবাস করেন ব্রিটেনে। ছোটবেলা থেকেই ফুটবল প্রিয় নাদা স্টেডিয়ামে খেলা দেখতে এসে বলেন, ‘যদি আপনারা আমাদেরকে বড় পর্দায় দেখান তাহলে আমি বলতে পারি, আরো অনেক সৌদি নারীরা দেশকে সমর্থন দিতে রাশিয়ায় আসবে।২৭ বছর বয়সী নাদা জানান এসেছিলেন সবুজ রঙের সৌদি পতাকা হাতে। রাশিয়ায় থাকা তার এক বন্ধু, নাদার মতে তিনি তার ভাইয়ের মত, তার মাধ্যমেই খেলা দেখতে এসেছেন তিনি। নারীদের এভাবে অবাধে চলাচল এক বছর আগেও ওমন ছিল না। তিনি বলেন, ‘পারদপক্ষে, আমরা নারী-পুরুষের সমানুতা অর্জন করেছি। আপনি ইচ্ছে অনুযায়ী যেকোন সৌদি নাগরিককে জিজ্ঞেস করুন, সেও একই কথা বলবে।’স্টেডিয়ামে খেলা দেখতে আসা অন্যান্য সৌদি নারীরা এসেছিলেন নিজ দেশের পতাকা হাতে। অনেকে মোহাম্মদ বিন সালমানের ছবি সম্বলিত পোস্টারও নিয়ে এসেছেন। সংস্কৃতির পালা বদলে ৩২ বছর বয়সী সালমান এখন সারা সৌদিতে উজ্জ্বল এক নাম।নাদার মত খেলা দেখতে এসেছেন সৌদি নারী রায়েল আল-মুতেইরি। মস্কোতে নিজের মা ও স্বামীর সঙ্গে এসেছেন সরকারি খরচে। ২৫ বছর বয়সী এই সরকারী কর্মকর্তা নারী বলেন, ‘আমি অনেক দূর থেকে এসেছি জাতীয় দলকে অনুপ্রেরণা যোগাতে। সৌদি নারীদের বর্তমান অবস্থান নিয়ে আমরা গর্ব করতে পারি। এটা দেশ এবং ফুটবল দলেরও গর্বের বিষয়।’ফুটবল স্টেডিয়ামে খেলা দেখার পাশাপাশি জুন পাশ থেকেই সৌদি নারীরা সুযোগ পেয়েছেন গাড়ি চালাতে। ইতোমধ্যে অনেকে ড্রাইভিং লাইসেন্স নিয়ে কাজও শুরু করে দিয়েছেন। প্রাচ্যের শিকল ভেঙ্গে সৌদি নারীদের বিশ্বকাপের মঞ্চে স্টেডিয়ামে খেলা দেখতে আসা অনুপ্রেরণা জোগাবে অন্য নারীদেরও। তারা প্রমাণ করলেন, সৌদি নারীরাও এখন সমঅধিকার নিয়ে প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে।