সদ্য সংবাদ

বিভাগ: পতনউষার

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন-২০১৯ :কমলগঞ্জে ৯ জন প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্ধ

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

FB_IMG_1551161800341-1FB_IMG_1551161786991

52822972_250045105937553_6182612212935294976_n-1

দ্বিতীয় ধাপে আগামী ১৮ মার্চ অনুষ্ঠেয় মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৯ জন প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় মৌলভীবাজার জেলা রিটার্ণিং অফিসারের কার্যালয়ে এ প্রতীক বরাদ্দ করা হয়।

নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তান চেয়ারম্যান অধ্যাপক রফিকুর রহমান  (নৌকা), স্বতন্ত্র প্রার্থী ইমতিয়াজ আহদে বুলবুল (আনারস) ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মনোনীত প্রার্থী আব্দুল আহাদ মিনার (হাতুড়ে)।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান মো: সিদ্দেক আলী (তালা) রামভজন কৈরী (টিবওয়েল), শাব্বির এলাহী (চশমা) ও আং মুয়ীন ফারুক (মাইক), মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পারভীন আক্তার লিলি (ফুটবল) ও বিলকিস বেগম (পদ্মফুল)।

প্রতীক পাওয়ার পরই বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রার্থীদের প্রচারণা শুরু হয়েছে।

কমলগঞ্জে পতনঊষার উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রের জীর্ণদশা!

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

Kamalgonj H. Com Pic
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার জনগুরুত্বপূর্ণ পতনঊষার ইউনিয়ন উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রের জীর্ণদশা ধারণ করেছে। দীর্ঘদিন ধরে এখানকার চিকিৎসা ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে। প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নের স্থানীয়রা সহযোগিতার হাত প্রসারিত করলেও কার্যকর কোন উন্নয়ন পরিলক্ষিত হয়নি। নেই চিকিৎসক ও পানীয়জলের সুব্যবস্থা। সপ্তাহে একদিন ভিজিটর আসলেও অন্য পাঁচদিন রোগীদের কোন চিকিৎসা ও ঔষধ প্রদান করা হয় না। ফলে চিকিৎসা সুবিধা থেকে বঞ্চিত রোগীদের চরম দুর্ভোগ দেখা দিয়েছে।
সরেজমিনে দেখা যায়, পতনঊষার ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামে অবস্থিত উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে একজন আয়া অফিস খোলে বসে আছেন। তবে রোগীরা আসলেও কাউকে দেখিয়ে ঔষধ নেয়ার কোন ব্যবস্থা নেই। স্বাস্থ্যকেন্দ্রে এসে রোগীদের খালি হাতে ফিরে যেতে হচ্ছে। ইউনিয়নের প্রায় ২০ হাজার লোকের চিকিৎসা সেবার একমাত্র স্বাস্থ্যকেন্দ্রেটির কক্ষ, টয়লেট ও কোয়ার্টারের শোচনীয় অবস্থা ধারণ করেছে। জীর্ণশীর্ণ ঘরে পোকামাকড়ের বসতি গড়ে উঠছে। দীর্ঘদিন ধরে টিউবওয়েল না থাকায় পানীয়জলের তীব্র সংকট রয়েছে। জাইকার অর্থায়নে এক বছর পূর্বে দুই লক্ষ টাকা ব্যয়ে সংস্কার কাজ করানো হলেও তা দৃশ্যমান হচ্ছে না। নামে মাত্র কাজ করানো হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। জাইকা, এলজিএসপি, স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কয়েকটি গাছ কেটে বিক্রি, প্রবাসী ও স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে ইট, রড, সিমেন্ট, অর্থ এবং প্রতিষ্ঠানের গেইট নির্মাণ করা হলেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না।
স্থানীয় বাসিন্দা নজরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, “এই হাসপাতালে পানির ব্যবস্থাটুকুও নেই। আমার ভাতিঝা রাজন চৌধুরী প্রায় ৬০ হাজার টাকা ব্যয়ে গেইট নির্মাণ করে দিয়েছে। তাছাড়া গ্রামের লোকজন ইট, রড, সিমেন্ট দিয়ে সহযোগিতা করলেও সার্বিক কোন উন্নয়ন নেই। বর্তমানে কিছু মাটি ভরাট চলছে। তিনি আরও বলেন, রোগীরা এসে ফিরে যাচ্ছেন। কোন ধরণের সেবা পাচ্ছেন না। কারো পানির প্রয়োজন হলে আমার বাড়ি থেকে আনা হয়। কক্ষ ও টয়লেট এর শোচনীয় দশা। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কোন কক্ষেই ফ্যান নেই। তাছাড়া একজন নাইটগার্ড না থাকায় প্রতিষ্ঠানটির জিনিসপত্রও খোয়া যাচ্ছে।”
স্বাস্থ্যকেন্দ্রের আয়া রেহেনা আক্তার বলেন, সপ্তাহে মঙ্গলবার ভিজিটর আসলে রোগী দেখা হয়। তবে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অনেক সমস্যা রয়েছে। পানির প্রয়োজন হলে পার্শ্ববর্তী বাড়ি থেকে এনে খেতে হয়। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এর কমলগঞ্জ উপজেলার উপসহকারী প্রকৌশলী মামুনুর রহমান বলেন, এক বছর পূর্বে জাইকার মাধ্যমে বরাদ্ধকৃত দুই লক্ষ টাকায় ছাদের সংস্কার কাজ করা হয়।
পতনঊষার ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান নারায়ন মল্লিক বলেন, প্রতিষ্ঠানটির উন্নয়নের জন্য চেষ্টা চলছে। এলাকার লোকজন ও ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে কাজ করানো হচ্ছে। মাটি ভরাট হচ্ছে এবং কোয়ার্টারে কাঠ দিয়ে টিনের চালা তৈরি করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, টিউবওয়েল চুরি হয়ে যাওয়ায় পানির সমস্যা রয়েছে। তবে তা সমাধানের চেষ্টা চলছে।
কমলগঞ্জ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডা. রাকিবুল হাসান বলেন, এখানে চিকিৎসকের কোন পদ নেই। ভিজিটর রয়েছে। তবে জনবল স্বল্পতার কারণে অন্যস্থান থেকে সপ্তাহে মঙ্গলবার একজন ভিজিটর দিয়ে চালানো হচ্ছে। বিষয়টি উর্দ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট অবহিত করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে। এছাড়াও পানীয় জল সহ অন্যান্য সমস্যা সমাধানে কর্তৃপক্ষের কাছে বরাদ্ধ চাওয়া হয়েছে। বরাদ্ধ পাওয়া গেলেই সমস্যার সমাধান হবে।

পতনঊষার শ্রমিক পরিচালনা কমিটির দ্বি বার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

1
মৌলভীবাজার জেলা অটো টেম্পু, অটো-রিক্সা, মিশুক, সিএনজি সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন পতনঊষার শ্রমিক পরিচালনা কমিটির দ্বি বার্ষিক নির্বাচন-২০১৯ এর নির্বাচন গত শুক্রবার সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচনে সভাপতি পদে তাজুল ইসলাম (আনারস প্রতীক) ৫৮ ভোট ও সাধারণ সম্পাদক রহিম আলী (মোটর সাইকেল) ৫৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন।
অন্যান্য পদে বিজয়ীরা হলেন- সহ সভাপতি রোয়াব আলী (চশমা) ৫২ ভোট, যুগ্ম সম্পাদক আলী হোসেন (মোমবাতি) ৪৮ ভোট, অর্থ সম্পাদক সাহাদ খান (টিউবয়েল) ৭৫ ভোট, সদস্য সুফিয়ান মিয়া (হাঁস) ৯৩ ভোট, সুন্দর আলী (মই) ৫০ ভোট, সুমন মিয়া (ফুটবল) ৪১ ভোট পান। বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় সাংগঠনিক সম্পাদক আইনুর মিয়া, দপ্তর সম্পাদক সিরাজ মিয়া, প্রচার সম্পাদক জসিম মিয়া নির্বাচিত হন।
পতনঊষার ইউনিয়ন মিলনায়তনে শুক্রবার সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত ভোট অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ছিলেন পতনঊষার ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান নারায়ন মল্লিক সাগর, প্রিজাইডিং অফিসার টিপুল আলী ও নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করেন বয়তুল হক চৌধুরী। নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক ছিলেন লতিফ খান। নির্বাচন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন পতনঊষার ইউপি চেয়ারম্যান তওফিক আহমেদ বাবু, সাংবাদিক আব্দুল হান্নান চিনু, সাংবাদিক পিন্টু দেবনাথ, শহীদনগর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল বশর জিল্লুল। প্রমুখ।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন-২০১৯ যাচাই বাছাইকালে কমলগঞ্জে ২ চেয়ারম্যান ও ২ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

d7fcfd222801ecf80d258c195f0b515f-5c4728aa0ae3e
আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষ্যে দ্বিতীয় ধাপ ১৮ মার্চে অনুষ্ঠিত নির্বাচনের মনোনয়ন পত্র যাচাই বাছাই অনুষ্ঠিত হয় বুধবার মৌলভীবাজার জেলা রিটানির্ং অফিসার জেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়ে। যাছাই বাচাইকালে কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী ১জন, ওয়ার্কাস পার্টির মনোনিত ১জন, এবং ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়। মৌলভীবাজার জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এই চার প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিলের ঘোষণা দেন।
বুধবার সকাল ১১টায় মৌলভীবাজার জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাছাই বাচাই করা হয়। যাচাই বাছাই শেষে জেলা রিটার্নিং অফিসার ও নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ মঞ্জুরুল আলম চেয়ারম্যান পদে ব্যাংক ঋণ খেলাপী দেখিয়ে আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান এবং ওয়ার্কাস পার্টির মনোনিত প্রার্থী আব্দুল আহাদ মিনারকে আয়কর রিটার্ন জমা না দেওয়ায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেন। একই সাথে ব্যাংক ঋণ খেলাপীর কারণে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক মো. সিদ্দেক আলী ও ভোটারের জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বরসহ স্বাক্ষরিত পত্রটিতে জালিয়াতির কারণে মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীনের মনোনয়ন পত্র বাতিল ঘোষণা করেন।
মৌলভীবাজার জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ মঞ্জুরুল আলম চেয়ারম্যান পদে ২ প্রাথী ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিলের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এখন প্রার্থীরা আপিলের সুযোগ পাবেন।
কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদে মনোনয়ন বাতিল হওয়া আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান বলেন, তিনি ঋণ খেলাপী নন। তিনি ঋণ পরিশোধ করেছেন আগেই। তবে ব্যাংক থেকে সঠিক কাগজ জেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে পৌছেনি। ব্যাংকের কাগজপত্র তিনি নিজেও জমা করেছেন। এখন বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছ থেকে একটি প্রতিবেদন আসার কথা। তিনি এ ব্যাপারে আপিল করবেন বলে জানান। একই কথা জানান মনোনয়ন বাতিল হওয়া ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. সিদ্দেক আলী।
উল্লেখ্য, গত সোমবার ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে কমলগঞ্জে আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রার্থী অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান ও আওয়ামীলীগ ঘরোনার স্বন্ত্র প্রার্থী মৌলভীবাজার-৪ আসনের সাংসদ উপাধ্যক্ষ ড. মো: আব্দুস শহীদের ছোট ভাই ইতমিয়াজ আহমদ বুলবুল স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে মনোনয়নপত্র জমা করেছিলেন। একই দিনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল গফুর ও ওয়ার্কার্স পার্টির মনোনিত প্রার্থী আব্দুল আহাদ মিনার জেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে মনোনয়পত্র জমা করেছিলেন।
একই দিনে কমলগঞ্জে ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম সম্পাদক মো. সিদ্দেক আলী, সাংবাদিক ও সংস্কৃতিকর্মী শাব্বির এলাহী, বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রাম ভজন কৈরী, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বিএনপির আব্দুল মুঈন ফারুক, মৃুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন মনোনয়নপত্র জমা করেছিলেন। অন্যদিকে এদিন কমলগঞ্জে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান পারভীন আক্তার (লিলি) ও মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী শিক্ষিকা বিলকিছ বেগম মনোনয়নপত্র জমা করেছিলেন।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন-২০১৯ কমলগঞ্জে চেয়ারম্যান পদে ৩, ভাইস চেয়ারম্যান ৬ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২টি মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

10
আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন-২০১৯ উপলক্ষে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন। কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৫টা পর্যন্ত চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোট ১১ জন প্রার্থী মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন। আগামী ১৮ মার্চ দ্বিতীয় ধাপে কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনে বৃহস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত চেয়ারম্যান পদে বর্তমান চেয়ারম্যান বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ সদস্য অধ্যাপক মো: রফিকুর রহমান, উপজেলা বিআরডিবি চেয়ারম্যান ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুল, উপজেলা আওয়ামীলীগ সদস্য শমশেরনগর ইউনিয়নের প্রাক্তন চেয়ারম্যান মো: আব্দুল গফুর, ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো: ছিদ্দেক আলী, ব্যবসায়ী নারায়ণ পাল, বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রামভজন কৈরী, আওয়ামীলীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন, সাংবাদিক ও সংস্কৃতিকর্মী শাব্বির এলাহী ও উপজেলা বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আং মুয়ীন (ফারুক), মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পারভীন আক্তার (লিলি) ও মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী শিক্ষিকা বিলকিছ বেগম মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন।
কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ জনসহ মোট ১১ জন প্রার্থী মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন। আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের শেষ দিন।

১৫ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার কমলগঞ্জের নয়াবাজার শ্রীরামপুর ব্যবসায়ী সমিতির নির্বার্চন

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

EC-Bhaban-bg20190107030021
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ২নং পতনউষার ইউনিয়নের নয়াবাজার শ্রীরামপুর ব্যবসায়ী নির্বাচন-২০১৯ আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে। গত ২ ফেব্রুয়ারি চুড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হয়, ৩ ফেব্রুয়ারি ছিল মনোনয়ন পত্র বিতরণ, ৫ ফেব্রুয়ারি মনোনয়নপত্র জমাদান,  ৬ ফেব্রুয়ারি মনোনয়নপত্র বাছাই ও বৈধ প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ, ৭ ফেব্রুয়ারি মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার ও চুড়ান্ত তালিকা প্রকাশ, ৮ ফেব্রুয়ারি ছিল প্রতীক বরাদ্ধ, ৯ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
প্রধান নির্বাচন কমিশনার শ্রীরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: আমিনুল ইসলাম চৌধুরী জানান, অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, গ্রহণযোগ্য ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের লক্ষ্যে ইতিমধ্যে  সকল কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৩ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ ও ফলাফল প্রকাশ করা হবে। ৩ বছর মেয়াদী ৩য় বারের মতো নয়াবাজার শ্রীরামপুর ব্যবসায়ী সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠানে মোট ভোটার সংখ্যা ১৫৩ জন।
নির্বাচন পরিচালনা কমিটির দায়িত্বে রয়েছেন প্রধান উপদেষ্টা ২নং পতনঊষার ইউপি চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার তওফিক আহমেদ বাবু, উপদেষ্টা ২নং পতনঊষার ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সেলিম আহমদ চৌধুরী, উপদেষ্টা ৫নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুল সোবহান, উপদেষ্টা লুৎফুর রহমান চৌধুরী, জুনেদ আহমদ, সৈয়দ মুজিবুর রহমান মমরুজ, পল্লী চিকিৎসক আশিক উদ্দিন, আব্দুল আজিজ ও শফিকুল ইসলাম রতন। প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্বে রয়েছেন কমিশনার শ্রীরামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: আমিনুল ইসলাম চৌধুরী, কমিশনার ২নং পতনঊষার ইউপি প্যানেল চেয়ারম্যান-১ নারায়ন মল্লিক সাগর ও মো: আব্দুল করিম।
নির্বাচনে ৭টি পদে ১৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। সভাপতি পদে আব্দুল মন্নান মনোয়ার (আনারস), মো: শামছুর রহমান (চেয়ার), সহসভাপতি পদে মো: তমিজ মিয়া (চশমা), মো: বাচ্চু খাঁন (তালাচাবি), সাধারণ সম্পাদক পদে মো: হেলাল আহমদ চৌধুরী  (দোয়াত কলম), মো: আছকর আলী (বাইসাইকেল), যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে মো: নোমান আহমদ (মাছ), মো: মতিউর রহমান শাহনুর (আম), তথ্য ও প্রচার সম্পাদক মো: খালেদ মিয়া (মোবাইল ফোন), বদরুল মিয়া (মই), কোষাধ্যক্ষ পদে মো: আব্দুল খালিক (কলস), মো: খলিলুর রহমান (সিলিংফ্যান), সাধারণ সদস্য পদে  মো: আরজান আলী (ফুটবল), রায়হান আহমদ সুলেমান (একতারা), মো: ছনোয়ার মিয়া  (মোরগ), মো: মামুন মিয়া (গোলাপফুল), মো: ফিরোজ মিয়া (ক্রিকেট ব্যাট) ও মো: মাসুক আহমদ (কাঁচি মার্কা)। সদস্য পদে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। এর মধ্যে ৫ জন প্রার্থীকে নির্বাচিত হবেন।

প্রতীক বরাদ্ধের পরই প্রার্থীরা  মার্কাযুক্ত পোষ্টার, বিলবোর্ড লাগিয়ে পুরোদমে প্রচারণা শুরু করেছেন। রাত দিন এ প্রচারণায় বিশেষ করে চা ষ্টল সরগরম হয়ে উঠেছে।  প্রার্থীরা বসে নেই নিজের মার্কায় ভোট দেয়ার জন্য ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন, দোয়া ও আশির্বাদ প্রার্থনা করছেন।  সব মিলে এক উৎসবমুখর পরিবেশ চলছে নয়াবাজার শ্রীরামপুর ব্যবসায়ী সমিতির নির্বাচন।

কমলগঞ্জে নবীন সেবা সংঘ মির্জাপুর সমাজ কল্যাণ সংস্থার শীতবস্ত্র বিতরণ

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

Pic-1
কমলগঞ্জের পতনঊষারে নবীন সেবা সংঘ মির্জাপুর সমাজ কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে অসহায়, দরিদ্র পরিবারের মধ্যে শীত বস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। বুধবার (২৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় স্থানীয় মির্জাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে সংস্থার সভাপতি মো: জসিম মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ১নং রহিমপুর ইউপি (স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত) চেয়ারম্যান ও ইফতেখার আহমেদ বদরুল।

সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ফজলুর রহমান ও যুগ্ম সম্পাদক জুনেদ আহমেদর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কমলগঞ্জ সাংবাদিক সমিতির সভাপতি আব্দুল হান্নান চিনু, আবুল ফজল চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি প্রভাষক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ, পতনঊষার ইউপি প্যানেল চেয়ারম্যান-১ নারায়ন মল্লিক সাগর, ইউপি সদস্য হাজী আব্দুল খালিক কবির।

50601728_2086700001367519_5457955542523707392_n

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রধান শিক্ষক হারুন মিয়া, শহীদনগর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল বশর জিল্লুল, সংস্থার সহসভাপতি সুমন আহমদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান চৌধুরী রাসেল, সংস্থার সদস্য সৈয়দ রাজিব আলী, ইকবাল হোসেন তালুকদার প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন শাজাদ চৌধুরী, সুফি মিয়া, আব্দুল মোহিত হাসানী, নবীন সেবা সংঘ মির্জাপুর সমাজ কল্যাণ সংস্থার নেতৃবৃন্দ ও এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবগ।
অনুষ্ঠানে অর্ধশতাধিক অসহায় দরিদ্রদের মধ্যে শীতবস্ত্র (কম্বল) বিতরণ করা হয়।

মৌলভীবাজার ৪ টি আসনের মধ্যে ৩টি আওয়ামীলীগ ও ১টি ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীর বিজয়

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

MP

মৌলভীবাজার জেলার ৪টি আসনের মধ্যে ৩টি আওয়ামীলীগ ও ১টি ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী বিজয় লাভ করে।

মৌলভীবাজার-১ (বড়লেখা-জুড়ী) আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী মো. শাহাব উদ্দিন ৭৭ হাজার ৮শ ৬৩ ভোটের ব্যবধানে হ্যাটট্রিক জয় লাভ করেছেন। গতকাল রবিবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে সারা দেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়।
স্থানীয় সূত্রে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী আওয়ামী লীগ প্রাথী মো. শাহাব উদ্দিন নৌকা প্রতীকে ১ লাখ ৪৩ হাজার ৬৭৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রাথী নাসির উদ্দিন মিঠু ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ৬৫ হাজার ৮১৪ ভোট। এর আগে তিনি ২০০৮ ও ২০১৪ সালে আওয়ামী লীগের সাংসদ নির্বাচিত হন।
মৌলভীবাজার-২: সিলেট বিভাগ তথা সারাদেশজুড়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর জয়জয়কারের মধ্যেও জয়লাভ করেছেন মৌলভীবাজার-২ আসনের ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী সুলতান মুহাম্মদ মনসুর আহমদ। ২ হাজার ৫৭২ ভোটের ব্যবধানে জয়লাভ করেছেন তিনি।
এই আসনের মোট ৯৩ কেন্দ্রের মধ্যে সুলতান মনসুর ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ৭৯ হাজার ৭৪২ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকে বিকল্পধারার প্রার্থী এমএম শাহীন পেয়েছেন ৭৭ হাজার ১৭০ ভোট।

মৌলভীবাজার-৩ : মৌলভীবাজার-৩ (সদর-রাজনগর) আসনে ৭৯ হাজার ৯শ ৮৭ ভোটের ব্যবধানে প্রথমবারের মতো জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী নেসার আহমদ।
রবিবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে সারা দেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়। স্থানীয় সূত্রে ১৬৮টি কেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত ফলাফলে জানা যায়, আওয়ামী লীগের প্রার্থী নেসার আহমদ পেয়েছেন ১ লক্ষ ৮৪ হাজার ৫শ ৭৯ ভোট। অপরদিকে তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির ধানের শীষের প্রার্থী নাসের রহমান পেয়েছেন ১ লাখ ৪ হাজার ৫শ ৯২ ভোট।

মৌলভীবাজার-৪: টানা ৬ষ্ঠ বারের মতো আবারো নির্বাচিত হয়েছেন মৌলভীবাজার-৪ (শ্রীমঙ্গল কমলগঞ্জ) সংসদীয় আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী ড. আব্দুস শহীদ। তার মোট প্রাপ্ত ভোট ২ লক্ষ ১১হাজার ৬১৩টি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী মুজিবুর রহমান ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৯৩ হাজার ২৯৫টি। আওয়ামী লীগের প্রার্থী আব্দুস শহীদ মোট ১ লক্ষ ১৮ হাজার ৩১৮ ভোটের ব্যবধানে বেসরকারী ভাবে বিজয়ী হয়েছেন।
শ্রীমঙ্গল উপজেলা সহকারি রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় হতে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী শ্রীমঙ্গল উপজেলার ৮০টি কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকে ড. আব্দুস শহীদ মোট ভোট পেয়েছেন ১ লক্ষ ১৪ হাজার ৩৫০ টি, ধানের শীষ প্রতীকে মো. মুজিবুর রহমান চৌধুরী ৪৯ হাজার ৫০৯ ভোট, হাতপাখা প্রতীকে মো. সালাউদ্দিন ৭শ’ ১৭ ভোট এবং উদীয়মান সূর্য প্রতীকে শান্তিপদ ঘোষ ৮৬ ভোট।
কমলগঞ্জ উপজেলা সহকারি রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় হতে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী কমলগঞ্জ উপজেলার ৭২টি কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকে মো. আব্দুস শহীদ মোট ভোট পেয়েছেন ৯৭ হাজার ২৬৩ টি, ধানের শীষ প্রতীকে মো. মুজিবুর রহমান চৌধুরী ৪৩ হাজার ৭৮৬ ভোট, হাতপাখা প্রতীকে মো. সালাউদ্দিন ৬শ’০৮ ভোট এবং উদীয়মান সূর্য প্রতীকে শান্তিপদ ঘোষ ৬১ ভোট।

শ্রীমঙ্গলে চা শ্রমিক সন্তানদের জন্য নির্মিত হচ্ছে ১০ তলা ছাত্রাবাস

শ্রীমঙ্গল সংবাদদাতা::

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল শহরের মৌলভীবাজার সড়কে অবস্থিত বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের নিজস্ব জমিতে সরকারের অর্থায়নে চা শ্রমিক সন্তানদের জন্য নির্মিত হচ্ছে ১০ তলা বিশিষ্ট বহুবিধ সুবিধাসম্পন্ন ছাত্রাবাস। এ ছাত্রাবাসে শুধুমাত্র চা বাগান শ্রমিকদের পরিবারের গরীব ও মেধাবী ছাত্রছাত্রীরা বিনামূল্যে বা স্বল্পব্যায়ে আবাসন সুবিধা পাবে। ৩০০ আসন বিশিষ্ট নির্মিতব্য এ ছাত্রাবাসে ১৫০টি আসন ছাত্রদের জন্য বাকি ১৫০টি আসন ছাত্রীদের জন্য সংরক্ষিত থাকবে। এ ব্যাপারে সরকার ও বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দের দ্বিপাক্ষিক চুক্তি বৃহস্পতিবার (২৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় শ্রীমঙ্গলস্থ চা শিল্প শ্রম কল্যাণ বিভাগের হলরুমে সম্পন্ন হয়েছে।

সরকারের পক্ষে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের পক্ষে শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অতিরিক্ত সচিব শিবনাথ রায় ও বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষে সাধারণ সম্পাদক রামভজন কৈরী চুক্তিনামায় স্বাক্ষর করেন। চুক্তি অনুযায়ী নির্মিতব্য ভবনটির রক্ষণাবেক্ষণ, ছাত্রাবাসসহ সার্বিক কার্যক্রম পরিচালনায় জেলা প্রশাসক বা তাঁর উপযুক্ত প্রতিনিধির সভাপতিত্বে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন শ্রীমঙ্গলস্থ বিভাগীয় শ্রম অধিদপ্তরের ১ জন প্রতিনিধি, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর শ্রীমঙ্গলের ১ জন প্রতিনিধি উপজেলা প্রশাসনের ২ জন প্রতিনিধি, চা শ্রমিক ইউনিয়নের ৬ জন প্রতিনিধি (১ জন সদস্য সচিবসহ) সহ মোট ১১ জনের সমন্বয়ে গঠিত বোর্ড/কমিটি ৩ বছর দায়িত্ব পালন করবেন এবং পরবর্তীতে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদ কর্তৃত গঠিত পরিচালনা কমিটি ভবনের সার্বিক দায়িত্ব গ্রহণ করবেন।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শ্রম অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগের পরিচালক গিয়াস উদ্দিন আহমদ, বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষে সভাপতি মাখন লাল কর্মকার, বাংলাদেশ টি এস্টেট স্টাফ এসোসিয়েশনের সভাপতি মাহবুব রেজা, রাজঘাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক আহ্বায়ক বিজয় বুরার্জী, শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি ইসমাইল মাহমুদ, চা শ্রমিক ইউনিয়নের অর্থ সম্পাদক পরেশ কালিন্দী, বালিশিরা ভ্যালী কমিটির সভাপতি বিজয় হাজরা, সিলেট ভ্যালী সভাপতি রাজু গোয়ালা, মনু-ধলাই ভ্যালী সম্পাদক নির্মল দাস পাইনকাসহ চা শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির ৩৪ জন সদস্য।

চুক্তি স্বাক্ষরের ব্যাপারে বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষে সাধারণ সম্পাদক রামভজন কৈরী বলেন, ‘চা শ্রমিক ছাত্রছাত্রীদের জন্য এটি বর্তমান চা শ্রমিকবান্ধব সরকারের একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ এর জন্য কাজ করছিলেন। শেষ পর্যন্ত অনগ্রসর চা জনগোষ্টির প্রতি প্রধানমন্ত্রীর সদইচ্ছার ফসল।

তিনি আশা করছেন, খুব তাড়াতাড়ি প্রয়োজনীয় কাজ কর্ম শেষে এর নির্মান কাজ শুরু হবে। এটি নির্মিত হবার পর শ্রমিক সন্তানদের শিক্ষাব্যবস্থার উন্নয়ন সাধন হবে। তিনি যুগান্তকারী এ পদক্ষেপের জন্য বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সকল নেতৃবৃন্দ ও চা শিল্পে নিয়োজিত সকল শ্রমিকদের পক্ষ থেকে জননেত্রী শেখ হাসিনা ও তাঁর সরকারকে ধন্যবাদ জানাই।’

কমলগঞ্জে বিএনপি ও যুবদলের দুজনকে গ্রেফতার

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

1-177
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে উপজেলা যুবদলের ও শমশেরনগর ইউনিয়ন বিএনপির দুজনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। গত বৃহস্পতিবার (২৭ ডিসেম্বর) রাতে কমলগঞ্জের পতনউষার থেকে উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক হেলাল উদ্দীনকে গ্রেফতার করা হয়।  শুক্রবার (২৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় শমশেরনগর ইউনিয়নের শিংরাউলী গ্রাম থেকে ইউনিয়ন বিএনপির সদস্য জাহিদ মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অরুপ কুমার চৌধুরী বৃহস্পতিবার রাতে ও শুক্রবার রাতে য়ুবদল ও বিএনপির দুইজনকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেন।