সদ্য সংবাদ

পুরাতন সংবাদ: May 2019

শ্রীমঙ্গলে বাংলাদেশ চা গবেষনা কেন্দ্রের ৫৩ তম টি কোর্সে শুভ উদ্বোধন

আর.কে. সোমেন
২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশের চায়ের উৎপাদন ১৪০ মিলিয়ন কেজিতে উত্তীর্ণ করতে  চা সংশ্লিষ্ট সবাইকে এক যোগে কাজ Pic= 3করতে হবে। চাহিদা মেটাতে উৎপাদন বাড়ানোর বিকল্প নেই। বিশ্ব জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলার দক্ষতা অর্জনসহ  প্রতিকুলতা মোকাবেলায় চায়ের নতুন নতুন জাত আবিস্কার করতে হবে।
শনিবার (৩ মার্চ)  দুপুরে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলস্থ বাংলাদেশ চা গবেষনা কেন্দ্রের ৫৩তম বার্ষিক টি কোর্স এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তবে বানিজ্য মন্ত্রনালয়ের যুগ্ন সচিব মো: ইরফান আলী উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
বাংলাদেশ চা গবেষনা কেন্দ্রের পরিচালক ড. মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশীয় চা সংসদের সিলেট ব্রান্স চেয়ারম্যান জিএম শিবলী। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রবীণ টি প্লান্টার এম আর খান চা বাগানের সত্ত্বাধিকারী সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী ও জেরিন টি এর ম্যানেজার মো. সেলিম রেজা প্রমূখ।
কোর্সে ৩৫ জন সহকারী ব্যবস্থাপক ছাড়াও বিভিন্ন চা বাগানের আরো প্রায় অর্ধশত সিনিয়র প্লান্টারস উপস্থিত ছিলেন।

শমশেরনগরে নাজারেথ তেলুগু ব্যাপ্টিষ্ট চার্চ ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠিত

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট
1মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর নাজারেথ তেলুগু ব্যাপ্টিষ্ট চার্চ এর ২০১৮-২০১৯ বছরের ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন করা হয়েছে। গত শুক্রবার একটি সাধারণ সভার মাধ্যমে এ কমিটি গঠিত হয়। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সন্যাসি পিরেগুকে সভাপতি ও মিখায়েল পিরেগুকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অন্য কর্মকর্তারা হলেন- পালকঃ যোষেফ রাল্ফ, সহ-পালকঃ সঞ্জিব পিরেগু, সহ-সম্পাদকঃ রাজু পিরেগু, যুগ্ন কোষাধ্যক্ষঃ আপড়ু পিরেগু ও যেশুদাস পিরেগু।
উল্লেখ্য, বৃহত্তর সিলেট বিভাগের একমাত্র তেলুগু চার্চ ১৯৮২ সালের ১৬ আগষ্ট প্রতিষ্ঠাতা লাভ করে। এর প্রতিষ্ঠাতা পালক আপ্পানা পিরেগু।

শমশেরনগরে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ ॥ থানায় মামলা

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট
1এক স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহষ্পতিবার সন্ধ্যারাতে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার  শমশেরনগর ইউনিয়নের বড়চেগ গ্রামের পূর্ব টিলায়। ছাত্রী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণির ছাত্রী। ধর্ষনের শিকার শিশুকে শুক্রবার মৌলভীবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় কমলগঞ্জ থানায় একটি মামলা হয়েছে।
মামলা সূত্রে জানা যায়, বড়চেগ গ্রামের মাছ ব্যবসায়ী সুফিয়ান মিয়ার মেয়ে ২য় শ্রেণির ছাত্রী (৮) কে একা পেয়ে একই গ্রামের বশির মিয়ার ছেলে বখাটে জাবেদ মিয়া (১২) জোর করে পাশের একটি গাছ বাগানে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। ছাত্রী মায়ের কাছে সব ঘটনা খুলে বলে। এ ঘটনায় শুক্রবার সকালে স্কুল ছাত্রীর মা লাকী বেগম বাদী হয়ে জাবেদ মিয়াকে আসামী করে কমলগঞ্জ থানায় একটি মামলা (মামলা নং ০১, তারিখ-০২/০৩/২০১৮ইং) দায়ের করেছেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক আবু সায়েম মো: আব্দুর রহমান বলেন, ধর্ষনের বিষয়টি তদন্ত চলছে। ভিকটিমকে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
বিষয়টি নিশ্চিত করে কমলগঞ্জ থানার ওসি মো. মোকতাদির হোসেন পিপিএম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, শিশুটিকে উদ্ধার করে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় কমলগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

কমলগঞ্জে বন্যা আতংকে ধলাই নদী পাড়ের মানুষ ॥ মাটি যাচ্ছে ইটভাটায়

11
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট
প্রতিবছর বন্যায় ধলাই নদীর বাঁধ ভেঙ্গে ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়। এ ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে ধলাইপাড়ের মানুষ নানা কষ্ট ও ভোগান্তি পেতে হয়। ধলাই নদীর বাঁধ থেকে ইটভাটার জন্য প্রভাবশারীরা অবৈধভাবে মাটি নিচ্ছেন। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার উপর দিয়ে প্রবাহিত ধলাই নদীর পাড়ের মাটি অবৈধভাবে যাচ্ছে ইটভাটায়। কোন নিয়মের তোয়াক্কা না করে স্থানীয় প্রভাবশালীরা নদীর পাড় কেটে এসব মাটি বিক্রি করছেন বিভিন্ন ইটভাটায়। এতে চরম হুমকির মুখে পড়েছে ধলাই নদীর প্রতিরক্ষা বাঁধ। উপজেলার বিভিন্ন ইটভাটার মালিক স্থানীয় প্রভাবশালীদের মাধ্যমে এসব মাটি নিয়ে যাচ্ছে ভাটায়।
স্থানীয় লোকজন অভিযোগ করে বলেন, কমলগঞ্জ উপজেলার ৩নং মুন্সিবাজার ইউনিয়নের সুরানন্দপুর-কুমারটেকি এলাকার নদী পাড় কাটছেন প্রভাবশালী গফুর মিয়া, মনা চৌকিদার, মখাই মিয়া গংরা প্রতিবছর ধলাই নদীর পাড়ের মাটি কেটে বিক্রি করেন। এবছরও ধলাই নদীর পাড় কেটে মাটি নেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন ব্রিকস ফিল্টে। আর ট্রাক্টরে করে এসব মাটি আনা-নেওয়ার ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে গ্রামীণ রাস্তা ও বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ। এলাকাবাসী এ কাজে অনেক বার বাঁধা দিলেও তাতে কোনো কাজ হয়নি। বরং বিভিন্নভাবে নেতাদের নাম ভাংগিয়ে তাদের ভয় দেখিয়ে ধমিয়ে রাখা হচ্ছে।
সরেজমিনে দেখা গেছে, মাটি কাটার মেশিন দিয়ে ও কোদাল দিয়ে নদীর পাড় খনন করে মাটি নেওয়া হয়েছে ইটভাটায়। প্রতিরক্ষা বাঁধ কেটে তৈরি করা হয়েছে মাটিবাহী গাড়ি চলাচলের রাস্তা। ভারী ওজনের মাটিবাহী ট্রাক ও ট্রাক্টরের চলাচলে রাস্তার বিভিন্ন স্থানে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। গাড়ি চলাচল করায় রাস্তার ধুলাবালিতে এলাকাবাসী বিপাকে পড়েছেন। এলাকাবাসী জানান, নদী পাড়ের মাটি কাটার ফলে বন্যার সময় দ্রুত পানি এসে প্রতিরক্ষা বাঁধে আক্রমণ করবে। তাদের মাটির গাড়ি চলাচলে যে ক্ষতি হচ্ছে তাতে বাঁধ ভেঙে যেতে পারে। এতে আশপাশের প্রায় অর্ধশত গ্রাম প্লাবিত হতে পারে।
ভুক্তভোগী এলাকার বাসিন্দারা বলেন, আমরা বারবার নিষেধ করার পরও তারা কোনো কথা শুনছে না। বন্যা হলে বাঁধ ভাঙার আতঙ্কে থাকি। এর জন্য দায়ী এই অসাধু মাটি বিক্রেতা ও ক্রেতারা। এবার যেভাবে বন্যা হয়েছে, আগামী বছর যদি এভাবে বন্যা হয়, তাহলে ভাঙন নিশ্চিত। মাটি বিক্রেতা গফুর বলেন, প্রতিবছর মাটি বিক্রি করছি এতে কোন সমস্যা হচ্ছেনা। স্থানীয় ইউপি সদস্য সুমন মল্লিক বলেন, এব্যাপারে এলাকাবাসী প্রতিবাদ করেছেন। আমি নিজেও অনেক ফরিয়াদি হয়েছি কোন সফলতা আসেনি।
পরিবেশ সাংবাদিক ফোরাম, মৌলভীবাজার এর সাধারণ সম্পাদক নুরুল মোহাইমীন মিল্টন বলেন, জমির উর্বর মাটি চলে যাওয়ায় এমনিতেই কৃষির ক্ষতি বয়ে আনছে। এর পাশাপাশি ইটভাটার ধোঁয়া এবং নদী পারের মাটি কেটে নেয়ায় পরিবেশের মারাত্মক বিপর্যয় ও এলাকার জন্য হুমকির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।
পানি উন্নয়ন বোর্ড, মৌলভীবাজার এর নির্বাহী প্রকৌশলী নরেন্দ্র শংকর চক্রবর্ত্তী জানান, নদী পাড়ের মাটি কাটা বা বিক্রি করা সম্পূর্ণ অবৈধ। নদীর পাড় ক্ষতিগ্রস্থ হলে প্রতিরক্ষা বাঁধে তার প্রভাব পড়বে। এভাবে মাটি কাটা সম্পুর্ণ নিষেধ। এ ব্যাপারে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, এ বিষয়টি আমার জানা নাই, তবে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়ে কমলগঞ্জে আনন্দ মিছিল

FB_IMG_1519973999492-600x400-1

কমলকুঁড়ি রিপোর্টঃ

বাংলাদেশ জাতীয় সাংসদ এর সাবেক সফল চীফ হুইপ বীর মুক্তিযুদ্ধা উপাধ্যক্ষ ড. মো অাব্দুস শহীদ এম পি  কে বাংলাদেশ জাতীয় সাংসদ এর সরকারি প্রতিশ্রুতি সম্পর্কিত সংসদীয় স্হায়ী কমিটির সভাপতি নির্বাচিত করায় কমলগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ’ যুবলীগ ও ছাত্রলীগ উদ্যোগে বিশাল অানন্দ মিছিল বের করা হয়।

শুক্রবার সকাল  পৌরসভার সম্মুখ হতে  মিছিলটি ভানুগাছবাজারের বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিন করে পৌরসভায় এসে সমাপ্ত  হয়। বক্তব্য রাখেন  উপজেলা আওয়ামীলীগের  সভাপতি এম মোসাদ্দেক আহমদ মানিক ও কমলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র  জুয়েল আহমদ ও কমলগঞ্জ উপজেলা  ইসলামপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান, সাংগঠনিক সম্পাদক হারুনুর রশিদ ভুইয়া ও কমলগঞ্জ সদর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান  আছলম ইকবাল মিলন,  কমলগঞ্জ সদর ইউপি চেয়ারম্যান  অাব্দুল হান্নান  ও মুন্সীবাজার ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মোতালিব তরফদার,  আলীনগর চেয়ারম্যান ফজলুল হক বাদশা পতনউষার চেয়ারম্যান ইঞ্জি: তওফিক আহমদ বাবু, আদমপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান সাব্বির আহমদ ভুইয়া  ও আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

মঞ্চ ভেঙে পড়ে গেলেন মেয়র সাঈদ খোকন

নিউজ ডেস্ক::

photo_-bg20180301142321-1

রাজধানীর পরীবাগে মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকনের এক মত বিনিময় অনুষ্ঠানের মঞ্চ ভেঙে পড়েছে। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ২১ নম্বর ওয়ার্ডের সার্বিক উন্নয়ন, ভবিষ্যৎ কর্ম পরিকল্পনা ও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন নাগরিক সমস্যার কথা শুনতে চলছিল ‘জনতার মুখোমুখি জনপ্রতিনিধি’ শীর্ষক অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানের মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন। সেখানে উপস্থিত নাগরিকদের বিভিন্ন প্রশ্ন ও সমস্যার কথা শুনে উত্তর দিচ্ছিলেন মেয়র। প্রশ্নের উত্তর দেয়ার সময়ই হঠাৎ ভেঙে পড়লো মঞ্চ। মেয়রসহ মঞ্চে উপস্থিত সবাই ভাঙা মঞ্চ নিয়ে পড়ে গেলেন নিচে। এসময় মঞ্চে প্রায় ৩০-৩৫ জন ছিলেন। তবে কেউ আহত হননি। বেলা সাড়ে ১২ টার কিছু সময় পরে এ ঘটনা ঘটে।

পরে মেয়র থোকন দাঁড়িয়ে বলেন, আল্লাহর রহমতে আমি ঠিক আছি। কোনো সমস্যা হয়নি। এটি দুর্ঘটনাবশত হয়েছে। যেহেতু এমন দুর্ঘটনা ঘটেছে তাই আজ আর দুই-একটি প্রশ্ন নিয়েই অনুষ্ঠান শেষ করে দেব।

সবাই ধাতস্ত হলে রাস্তায় দাঁড়িয়ে আরো কিছুক্ষণ কথা বলেন মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। বেলা ১টার দিকে সেখান থেকে তিনি চলে যান।

রাজনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় ১ জন নিহত

1

রাজনগর  :

মৌলভীবাজার জেলার রাজনগরে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিরঞ্জন দে (৭০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ৪ জন সিএনজি অটোরিকশা যাত্রী। বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৪টার দিকে রাজনগর উপজেলার লঙ্গলপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত নিরঞ্জন মৌলভীবাজার সদর উপজেলার কনকপুর ইউনিয়িনের আপদা গ্রামের নগেন্দ্র কুমার দে’র ছেলে। আহতরা হলেন- সদর উপজেলার কনকপুর ইউনিয়নের আপদা গ্রামের বিনদ করের ছেলে অজয় কর (৩০), রাজনগর উপজেলার টেংরা এলাকার গিয়াস মিয়ার স্ত্রী শায়লা বেগম (৩৫) তার মেয়ে ওমি বেগম (১৭) ও শিশু সন্তান রফিক মিয়া। আহতরা মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাজনগর থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ওয়াদুদ।