সদ্য সংবাদ

পুরাতন সংবাদ: May 2019

বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মোতালিব তরফদার দ্বিতীয় বারেরর মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত

হোসেন জুবায়ের :

13346424_1113788972012355_3313251353857422431_n

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ৩নং মুন্সীবাজার ইউনিয়ন পরিষদের আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মোতালিব তরফদার দ্বিতীয় বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

তার প্রাপ্ত ভোট ৪ হাজার ৫৩৯। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি বিএনপির মনোনিত প্রার্থী সফিকুর রহমান চৌধুরী পান ৩ হাজার ৬৯২ ভোট। ৮৪৭ ভোট বেশি পেয়ে পুর্ণরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

আধুনিক উন্নয়নের রূপকার আব্দুল মোতালিব তরফদার ২০১০ সালে প্রথম বার ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে মুন্সীবাজার ইউনিয়নের রাস্তা ঘাট, ব্রীজ, কালভার্ট, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ দিয়ে মানুষের স্বপ্ন পূরণ করতে সক্ষম হয়েছেন। এই কারণে জনগণ তাঁকে আবার মূল্যায়ন করেছেন। নব নির্বাচিত বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগের নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মোতালিব তরফদার মহান জাতীয় সংসদের সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ মোঃ আব্দুস শহীদ এমপির নেতৃত্বে এই উন্নয়ন কাজ তরান্বিত ও বাস্তবায়ন করেন। তিনি জানান এ বিজয় ইউনিয়নবাসীর বিজয়। বাকি অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করতে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

পঞ্চম ধাপ ইউপি নির্বাচন : পতনঊষার ইউপিতে যারা নির্বাচিত হলেন

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট :

87

২৮ মে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে পঞ্চম ধাপে অনুষ্ঠিতব্য কমলগঞ্জ উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নে চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য যারা নির্বাচিত হলেন তারা হলেন চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ ইঞ্জিনিয়ার তওফিক আহমদ বাবু (নৌকা)।

১নং ওয়ার্ডে সদস্য রিপন ইসলাম ময়নুল, ২নং ওয়ার্ডে আব্দুস কদ্দুছ, ৩নং ওয়ার্ডে এখলাছ মিয়া, ৪নং ওয়ার্ডে সায়েক আহমদ, ৫নং ওয়ার্ডে আব্দুছ ছোবহান চৌধুরী, ৬নং ওয়ার্ডে নারায়ন মল্লিক সাগর, ৭নং ওয়ার্ডে হাজী আব্দুল খালিক, ৮নং ওয়ার্ডে মো: সাজিদ আলী ও ৯ নং ওয়ার্ডে মোঃ আশিক মিয়া।

সংরক্ষিত মহিলা সদস্য  (১,২ও৩)নং ওয়ার্ডে ঊষা রানী নাথ, (৩,৪ও৫)নং ওয়ার্ডে ছায়া বেগম ও (৬,৭ও৮) নংওয়ার্ডে জোসনা বেগম।

পঞ্চম ধাপে ৬৬৪ ইউপিতে আ’লীগ ৪২১, বিএনপি ৬৬

 87

কমলকুঁড়ি  ডেস্ক :
পঞ্চম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের ৬৬৪ ইউপির ফলাফল সমন্বয় করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ ধাপে আওয়ামী লীগের ৩৯ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
গতকাল রবিবার (২৯ মে) ইসির নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখার সমন্বয় করা ফলাফল অনুযায়ী, ৬৬৪ ইউপিতে আওয়ামী লীগ ৪২১টিতে ও বিএনপি ৬৬টিতে জয় পেয়েছে। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ১৬৮ ইউপিতে বিজয়ী হয়েছেন।
এদিকে কেন্দ্র স্থগিত হওয়ায় এবং ফল পাঠাতে মাঠ কর্মকর্তারা বিলম্ব করায় ৫৩ ইউপির ফল সমন্বয় হয়নি।
পঞ্চম ধাপে ১ কোটি ১৩ লাখ ৮৭ হাজারের বেশি ভোটারের মধ্যে ৮৭ লাখ ৪৬ হাজার ৬৭ জন ভোট দিয়েছেন। অর্থাৎ প্রদত্ত ভোটের হার ৭৬ দশমিক ৮ শতাংশ।
অন্যদিকে এ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ১৮৩৬টিতে আর বিএনপি ২৪৩টি ইউপিতে জয় পেয়েছে।
প্রথম ধাপে আওয়ামী লীগের ৪৯৪ জন ও বিএনপির ৫০ জন প্রার্থী জয় পেয়েছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জয় পান ১০৯ ইউপিতে। আর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের ৫৪ জন প্রার্থী।
দ্বিতীয় ধাপে আওয়ামী লীগ ৪১৯টিতে ও বিএনপি ৬৩ ইউপিতে জয় পেয়েছে। স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জয় পান ১১৭ ইউপিতে। আর সরকার দলের ৩৪ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।
তৃতীয় ধাপে আওয়ামী লীগের ৩৬৬ জন, বিএনপি ৬০টিতে জয় পেয়েছে। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ১৩৯টি ইউপিতে জয় পেয়েছেন। আর আওয়ামী লীগের ২৯ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
চতুর্থ ধাপে আওয়ামী লীগের ৪০৫ জন, বিএনপির ৭০ জন এবং আওয়ামী লীগের ৩৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া ১৬১ জন প্রার্থী স্বতন্ত্র থেকে নির্বাচিত হয়েছেন।
শনিবার (২৮ মে) পঞ্চম ধাপের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আগামী ৪ জুন ষষ্ঠধাপের ভোটগ্রহণের মধ্য দিয়ে ইউপি নির্বাচন সমাপ্ত হবে।

মৌলভীবাজার সদরে ৩ বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামীলীগ থেকে বহিষ্কার

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ৩টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের ৩ বিদ্রোহী প্রার্থীকে বহিষ্কার করেছে জেলা আওয়ামীলীগ। সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহি কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজের নির্দেশে মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি উপাধ্যক্ষ মো. আব্দুস শহীদ এমপি এবং সাধারণ সম্পাদক নেছার আহমদ এক পত্রে তাদের প্রাথমিক সদস্যপদসহ দলের সকল পদ থেকে বহিষ্কার করেন।
বহিষ্কৃতরা হলেন কনকপুর ইউনিয়নে বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউর রহমান রেজা, কামালপুর ইউনিয়নে বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি হাজী আলাউর রহমান এবং আখাইলকুড়া ইউনিয়নে বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী খয়েজ আহমদ। -বিজ্ঞপ্তি

কমলগঞ্জ পৌরসভায় বার্ষিক বাজেট ঘোষণা

Pic---Klg Mayor
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌরসভার ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বার্ষিক খসড়া বাজেট ঘোষণা করা হয়। রোববার (২৯ মে) বেলা ১টায় কমলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো: জুয়েল আহমদ আনুষ্ঠানিকভাবে এ বাজেট ঘোষণা করেন। কমলগঞ্জ পৌরসভার সকল কাউন্সিলর, নারী কাউন্সিলর, সাংবাদিক ও সুধীজনদের উপস্থিতিতে মেয়র মো: জুয়েল আহমদ লিখিত বাজেট উপস্থাপন করে জানান, আগত তহবিল থেকে রাজস্ব খাতে ৬৫ লাখ ৪৩ হাজার ৭৭৮/৫৮ টাকা আয়, ৫৬ লাখ ৩২১ টাকা ব্যয় ৯ লাখ ৪৩ হাজার ৪৫৭/৫৮ টাকা উদ্বৃত্ত ধরা হয়।  এর মাঝে উন্নয়ন খাতে ২ কোটি ৩ লাখ ৭৬ হাজার ৬১৯/৫০ টাকা আয় সম পরিমাণ টাকা ব্যয় সম্বলিত ২০১৫-২০১৬ অর্থ বছরের সংশোধিত এবং রাজস্ব খাতে ৮৫ লাখ ৪১ হাজার ৪৬৯/৫৮ টাকা আয়, ৭৮ লাখ ৮৫ হাজার টাকা ব্যয় নির্ধারণ হয়। ৬ লাখ ৫৬ হাজার ৪৬৯/৫৮ টাকা উদ্বৃত্ত ধরা হয়। উন্নয়ন খাতে ৩ কোটি ৯৭ লাখ ১০ হাজার টাকা আয় ও সম পরিমাণ টাকা ব্যয় ধরে ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরে কমলগঞ্জ পৌরসভার বাজেট সর্ব সম্মতিক্রমে অনুমোদন করা হয়।

ইউপি নির্বাচন-২০১৬ (৫ম দফা) : কমলগঞ্জে ৯টি ইউপিতে চেয়ারম্যান প্রার্থীরা কে কত ভোট পেলেন

Kamalgonj UP Charman
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
শনিবার (২৮ মে ) অনুষ্ঠিত ৫ম দফায় ইউপি নির্বাচনে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে ৯টি ইউনিয়নেরর মধ্যে ৬টিতে আওয়ামীলীগ ১টিতে বিএনপি ও ২টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়েছে। কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে ৯টি ইউনিয়নের ৯৪টি কেন্দ্রে মোট ৪২৫টি কক্ষে (বুথ) মোট ১৩৬৯ জন ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা ভোট গ্রহণ করেন।
১ নং রহিমপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান কমলগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী ইফতেখার আহমেদ বদরুল ৮৯৯০ ভোট বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির সাজিম আহমদ তরফদার পেয়েছেন ৮১৯২ভোট।
২নং পতনউষার ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার মো: তওফিক আহমদ বাবু ৬১২৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির অলি আহমদ খান পেয়েছেন ২৮০৪ ভোট।
৩ নং মুন্সীবাজার ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মোতালিব তরফদার ৪৫৪০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির শফিকুর রহমান চৌধুরী পেয়েছেন ৩৬৮৮ ভোট।
৪ নং শমশেরনগর আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী জুয়েল আহমদ ৬১৪৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল গফুর (বিদ্রোহী আ,লীগ) পেয়েছেন ৪৭৯১ ভোট।
৫ নং কমলগঞ্জ সদর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মো: আব্দুল হান্নান ৪৬২২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির গোলাম কিবরিয়া শফি পেয়েছেন ৩৯৮৯ ভোট।
৬ নং আলীনগর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী ফজলুল হক বাদশা ৭৬৯০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির অ্যাড: মো: আব্দুল আহাদ পেয়েছেন ৩১৮২ ভোট।
৭ নং আদমপুর ইউনিয়নে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মো: আবদাল হোসেন ৮৩১৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলেিগর সাব্বির আহমদ ভূঁইয়া পেয়েছেন ৪৬৫৮ ভোট।
৮ নং মাধবপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা পুষ্প কুমার কানু ৭০৮৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের মো: আসিদ আলী পেয়েছেন ৬০৪০ ভোট।
৯ নং ইসলামপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা মো: আবদুল হান্নান ৭৬৯৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগের মো: সুলেমান মিয়া পেয়েছেন ৬০১৩ ভোট।

ইউপি নির্বাচন-২০১৬ (৫ম দফা) : কমলগঞ্জের পতনঊষার ইউনিয়নে সব কেন্দ্রে বিজয়ী হয়ে ভোটের রেকর্ড সৃষ্টি করলেন আওয়ামীলীগ প্রার্থী বাবু

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট :

13315588_1815540028677394_4161249696084817838_n

সবকটি (১০টি কেন্দ্র) কেন্দ্রে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে ভোটের রেকর্ড সৃষ্টি করলেন মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ২নং পতনঊষার ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার মো. তওফিক আহমদ বাবু। গত শনিবার (২৮ মে ) অনুষ্ঠিত ৫ম দফায় ইউপি নির্বাচনে বিএনপির ঘাটি হিসেবে খ্যাত পতনঊষার ইউনিয়নে তিনি এ বিজয় লাভ করেন। বিগত ২টি নির্বাচনে তিনি পরাজিত হয়েছিলেন। ফলাফল বিশ্লেষনে বোঝা যায়, দলীয় প্রতীকের কারণে কারণে নয় ব্যক্তি ইমেজকে কাজে লাগিয়ে বিগত একযুগ ধরে পতনঊষার ইউনিয়নের মানুষের সুখ-দু:খের সাথী ও এলাকার সার্বিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখার কারণে ৬১২৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী, পতনঊষার ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি ও কমলগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মো. তওফিক আহমদ বাবু। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী অলি আহমদ খান পেয়েছেন ২৮০৪ ভোট। এই বিজয়ে উল্লসিত পতনঊষার ইউনিয়নের দলীয় নেতকার্মী সহ সাধারণ মানুষজন। রোববার আওয়ামীলীগ প্রার্থী নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মো. তওফিক আহমদ বাবু ছুটে যান তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি বিএনপি মনোনীত প্রার্থী অলি আহমদ খানের বাড়িতে। তিনি অলি আহমদ খানকে মিষ্টি মুখ করান এবং পরিবার সদস্যদের সাথে কুশল বিনিময় করে দায়িত্ব পালনে সর্বপ্রকার সাহায্য কামনা করেন।

পতনঊষার ইউনিয়নে মোট ১৫ হাজার ৪০৬ ভোটের মধ্যে ১১ হাজার ৮২২ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। এর মধ্যে ২২৯টি ভোট বাতিল হয়। মোট ১০টি কেন্দ্রের ১০টি কেন্দ্রেই আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার মো. তওফিক আহমদ বাবু বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন। এ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী ছিলেন মোট ৭ জন। এর মধ্যে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ জরিপ হোসেন পেয়েছেন ১১৩ ভোট, চশমা প্রতীক নিয়ে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী বদরুজ্জামান চৌধুরী পেয়েছেন ১৮২৫ ভোট, মোটর সাইকেল প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মাহমুদুর রহমান পেয়েছেন ৬২৩ ভোট, আনারস প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী শেখ আসাদুজ্জামান চৌধুরী পেয়েছেন ৯৩ ভোট ও ঘোড়া প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজ চৌধুরী পেয়েছেন ১১ ভোট। কমলগঞ্জ উপজেলায় ৯টি ইউনিয়নের নির্বাচন সম্পন্ন হলেও শুধুমাত্র এই পতনঊষার ইউনিয়নেই একমাত্র আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী এতো বেশি ভোটের রেকর্ড সৃষ্টি করে জয় পেয়েছেন। সাধারণ মানুষজনের অভিমত, আওয়ামীলীগ প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার মো. তওফিক আহমদ বাবু একজন ভাল লোক। সিলেট পলিটেকনিক ইনষ্টিটিউটের প্রভাষক পদ থেকে চাকুরী ছেড়ে দিয়ে প্রায় ১১ বছর পূর্বে ুিনজ এলাকায় এসে রাজনীতিতে সক্রিয়ভাবে যোগদান করেন। বিগত ২টি নির্বাচনে তিনি প্রতিদ্বন্দিতা করলেও বিজয়ী হতে পারেননি। তবে হাল ছাড়েননি বাবু। এলাকার সার্বিক উন্নয়নে তার ভূমিকা ছিল চোখে পড়ার মত। এজন্য সাধারণ দলমত নির্বিশেষে সাধারণ মানুষের প্রচন্ড দুর্বলতা ছিল তার প্রতি। অনেকেই জানান, দল যার যার-বাবু সবার।

কমলগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এম, মোসাদ্দেক আহমেদ মানিক ও সাধারণ সম্পাদক উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক রফিকুর রহমান বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী পতনঊষার ইউনিয়নে এতো বেশি ভোট পেয়ে কোন চেয়ারম্যান প্রার্থী জয় পায়নি। তার মধ্যে এই প্রথম বারের মতো রেকর্ড সংখ্যক ভোটে আওয়ামীলীগ প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার মো. তওফিক আহমদ বাবু বিজয়ী হলেন। এতেই প্রতীয়মান হয় যে, এদেশের মানুষ আওয়ামীলীগকে কতটা ভালবাসে। বিপুল ভোটে আওয়ামীলীগ প্রার্থীকে বিজয়ী করায় তিনি পতনঊষার ইউনিয়নবাসীকে অভিনন্দন জ্ঞাপন করেন। নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মো. তওফিক আহমদ বাবু বলেন, শত বাঁধা বিপত্তি ও ষড়যন্ত্র উপেক্ষা করে আমার প্রতি এলাকার সর্বদলীয় মানুষের অকৃত্রিম ভালোবাসা ও উন্নয়নের প্রতীক নৌকার জনপ্রিয়তাই আমাকে এই সফলতা এনে দিয়েছে। তিনি ইউনিয়নবাসীর কাছে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, আমি আপনাদের কাছে চিরঋনি। আমি চেষ্টা করব সর্ব মহলের সহযোগিতা নিয়ে এ ইউনিয়নকে একটি আধুনিক ও মডেল ইউনিয়ন করা।

পঞ্চম দফা ইউপি নির্বাচন : আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতার কারণে শান্তিপূর্ণ ভোট হয়েছে

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট :
cec-300x200
পঞ্চম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে সহিংসতা অপেক্ষাকৃত কম হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ। গতকাল শনিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে ইউপি নির্বাচন পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।
সিইসি বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতার কারণে শান্তিপূর্ণ ভোট হয়েছে। জোর করে সিল মারার ঘটনাও এবার অনেক কমে এসেছে। ভোটের সময় যেমন নিরাপত্তা ছিল ঠিক তেমনি ভোটের পরও এলাকায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার জন্য ব্যবস্থা নিয়েছি আমরা।
এছাড়া অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ৫৩টি ভোটকেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। প্রয়োজনে আরও বন্ধ করে দেওয়া হবে বলেও জানান কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ। পঞ্চম ধাপে ৭১৭টি ইউপিতে নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। গতকাল সকাল ৮টায় শুরু করে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ করে সংস্থাটি। ইসির নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, এ ধাপে ৪৫ জেলার ৯৩ উপজেলায় ৭১৭টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ হয়েছে। নির্বাচনে প্রায় ১ কোটি ১০ লাখের মতো ভোটার ৬ হাজার ৪৮৪টি ভোটকেন্দ্রে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পেয়েছেন।

বায়োমেট্রিক সিম রেজিস্ট্রেশনের আর মাত্র তিন দিন বাকি।। তিন কোটির বেশি সিম বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত হয়নি

কমলকুঁড়ি ডেস্ক :
1464454469
বায়োমেট্রিক সিম রেজিস্ট্রেশনের আর মাত্র তিন দিন বাকি। অথচ এখনো তিন কোটির বেশি সিম বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত হয়নি। সর্বশেষ প্রচেষ্টা হিসেবে মোবাইল ফোন অপারেটররা সর্বোচ্চসংখ্যক সিমের বায়োমেট্রিক নিবন্ধন নিশ্চিত করতে নগদ অর্থও পুরস্কারের ঘোষণা দিয়েছে। তবে শেষ মুহূর্তে গ্রাহকরা ‘সংযোগে ত্রুটির’ জটিলতার মুখোমুখি হতে পারেন যাতে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত সিমের ব্যবহারে বিপত্তি ঘটতে পারে। অপারেটরদের গ্রাহকসেবা এজেন্টরা নাম প্রকাশ না করে বলেন, গ্রাহকদের আঙ্গুলের ছাপ সংগ্রহ ও শনাক্তকরণে তাদের ঘন ঘন নেটওয়ার্ক বিপত্তি অথবা মারাত্মক ডাউন প্রবলেম-এর মধ্যে পড়তে হচ্ছে। বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনের (বিটিআরসি) সচিব ও মুখপাত্র সারোয়ার আলম বলেন, সকল অপারেটরকে তারা সার্ভারের সঙ্গে সংযোগ নিরবিচ্ছিন্ন রাখার নির্দেশ দিয়েছেন যাতে মোবাইল ফোন গ্রাহকরা কোনো হয়রানি ছাড়াই নিবন্ধন সম্পন্ন করতে পারেন। বিটিআরসি বুধবার বলেছে, দেশে চালু মোট ১৩.১৯ কোটি মোবাইল সংযোগের মধ্যে ৯.৭০ কোটি সিম নিবন্ধন সম্পন্ন হয়েছে। এর আগে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, পুনঃনির্ধারিত মেয়াদ অনুযায়ী বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন ৩১ মে মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে, তবে বায়োমেট্রিক নিবন্ধন বহির্ভুত সিম এই দিন ‘জিরো আওয়ার’ থেকে বিচ্ছিন্ন করা হবে। বায়োমেট্রিক নিবন্ধন পরিস্থিতির বর্তমান অবস্থা এবং পরবর্তী ব্যবস্থা সম্পর্কে প্রতিমন্ত্রী আগামীকাল তার মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মেলনে জানাবেন। এদিকে বিটিআরসি গ্রাহকদের কাছ থেকে অভিযোগ গ্রহণের জন্য তাদের কোড- ‘২৮৭২’ চালু করেছে। সপ্তাহের ৫ দিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত এই কোড নম্বরের মাধ্যমে তারা অভিযোগ গ্রহণ করবে।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর শপথ নিলেন মমতা

কমলকুঁড়ি ডেস্ক :
1464368415
জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে শুরু হয় মমতার মন্ত্রিসভার শপথ অনুষ্ঠান। হাজারো জনতাকে সাক্ষী রেখে কলকাতার রেড রোডে শপথ নিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়সহ ৪৩ জন বিধায়ক। মুখ্যমন্ত্রীসহ পূর্ণমন্ত্রী ৩০ জন। প্রতিমন্ত্রী ৮ জন ও স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রী ৫ জন। প্রথা ভেঙে রাজভবনের ঘেরাটোপ থেকে বেরিয়ে শপথ খোলামেলা রেড রোডে। সাক্ষী নীতীশ-অখিলেশ-কেজরীওয়াল। ছিলেন জেটলি-বাবুল সুপ্রিয়। ট্যুইটে শুভেচ্ছা রাহুল গান্ধীর। সমাপ্ত শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান। রাজ্যপাল কেশরী নাথ ত্রিপাঠী শপথবাক্য পাঠ করান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। মমতার মন্ত্রী পদে শপথ নিলেন অমিত মিত্র, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, সাধন পান্ডে, জাভেদ খান, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, শোভন চট্টোপাধ্যায়, জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, রেজ্জাক মোল্লা, শুভেন্দু অধিকারী, বিনয়কৃষ্ণ বর্মন, পুর্নেন্দু বসু, ব্রাত্য বসু, অরূপ রায়, রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, চন্দ্রনাথ সিংহ, চূড়ামণি মাহাতো, মলয় ঘটক, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, সৌমেন মহাপাত্র, অরূপ বিশ্বাস, শান্তিরাম মাহাতো, গৌতম দেব, স্বপন দেবনাথ। শপথ ক্রিকেটার লক্ষ্মীরতন শুক্ল, ইন্দ্রনীল সেন, জাকির হোসেন, শ্যামল সাঁতরা, বাচ্চু হাঁসদা, সন্ধ্যারানি টুডু, গিয়াসুদ্দিন মোল্লা, মন্টুরাম পাখিরা, অসীমা পাত্র, আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়, জেমস কুজুর, তপন দাশগুপ্ত, অবনী জোয়রদার।