সদ্য সংবাদ

পুরাতন সংবাদ: May 2019

পতনঊষারে উন্মুক্ত বাজেট প্রস্তাব সভা

10
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নর ২০১৫-২০১৬ অর্থ বছরের উন্মুক্ত বাজেট প্রস্তাব সভা ৩১ মে দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। পতনঊষার ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম মিঞা। ইউপি সদস্য নারায়ন মল্লিক সাগরের উপস্থাপনায় বাজেট আলোচনায় অংশ নেন কমলকুঁড়ি পত্রিকার সম্পাদক পিন্টু দেবনাথ, সমাজসেবক আতিকুর রহমান কামরান, বয়তুল হক চৌধুরী, হেলাল চৌধুরী, মিজানুর রহমান মিষ্টার, ইউপি সদস্য আসাদুজ্জামান চৌধুরী প্রমুখ।
বাজেটে আয় ধরা হয়েছে ৭৩ লক্ষ ৮ হাজার ৮৯ টাকা। ব্যয়ও ধরা হয়েছে ৭৩ লক্ষ ৮ হাজার ৮৯ টাকা।

পতনঊষারে পাইওনিয়ার এডুকেশন ট্রাষ্টের মেধাবৃত্তি

20
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার পতনঊষারের পাইনিয়ার এডুকেশন ট্রাষ্ট কর্তৃক মেধাবৃত্তি অনুষ্ঠান পতনঊষার উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। ট্রাষ্টের সভাপতি মো: জাকির আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক রফিকুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশিস্ট সাংবাদিক ইসহাক কাজল, আব্দুল হান্নান চিনু, স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার তওফিক আহমদ বাবু, প্রধান শিক্ষক ফয়েজ আহমদ, আবুল ফজল চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহ: প্রধান শিক্ষক প্রমোদ চন্দ্র দেবনাথ, সমাজকর্মী মিজানুর রহমান মিষ্টার, আবুল খায়ের জুয়েল। মতিউর রহমান শিপুর উপস্থাপনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আলী রাজা, আবু মুন্না, মিছবাউদ্দিন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে ১৩ জন শিক্ষার্থীকে মেধাবৃত্তি, সনদপত্র ও পুরষ্কার বিতরণ করা হয়।

শমশেরনগর বিএএফ শাহীন স্কুল এন্ড কলেজে শতভাগ পাস ও সিলেট শিক্ষাবোর্ডে ৬ষ্ঠ তম স্থান লাভ

unnamed Band
মিজানুর রহমান শমশেরনগর প্রতিনিধিঃ
এবারের এসএসসি পরীক্ষায় সম্মিলিত মেধা তালিকায় মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর বিএএফ শাহীন কলেজ ৬ষ্ঠ তম স্থান লাভ করেছে। এই কলেজ থেকে ৯৯ জন
শিক্ষার্থীর সবাই পাস হয়েছে। এর মধ্যে ৪৬টি জিপিএ-৫ পেয়েছে। শমশেরনগর এ এ টি এম বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ে পাসের হার ৯৬.৫ %।পরীক্ষার্থী ছিলো ২১১ জন পাস করেছে ২০৩ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে ১১ জন।
শমশেরনগর হাজী মোঃ উস্তওয়ার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পাসের হার ৭৪ %।পরীক্ষার্থী ছিলো ৭৮ জন পাস করেছে ৭৪ জন আর জিপিএ-৫ পেয়েছে ১১ জন।
শমশেরনগর আব্দুল মছব্বির একাডেমী ৩৪ জন পরীক্ষার্থীর সবাই পাস
করেছেন।

এসএসসি ফলাফল ঃ কমলগঞ্জে ১২৬ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে ॥ পাসের হার ৭৭ ভাগ

Pic--Kamalgonj SSC BAF Shahin Collage
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
সিলেট শিক্ষা বোর্ডের অধীনে চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষায় মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২৬ জন। এ উপজেলায় ৪টি কেন্দ্রে মোট ২ হাজার ৪১৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ১৮৫৮ জন। পাসের হার শতকরা ৭৭ ভাগ। কমলগঞ্জ উপজেলার মোট ৪টি কেন্দ্রের মধ্যে শমশেরনগর বিএএফ শাহীন কলেজ থেকে ৪৬ জন, তেঁতইগাঁও রশিদ উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২১ জন, এ, এ, টি, এম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১১ জন, পতনঊষার উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১০ জন, হাজী মোঃ উস্তওয়ার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১১ জন, পদ্মা মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৯ জন, কমলগঞ্জ বহুমুখী মডেল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৪ জন, দয়াময় সিংহ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৩ জন, এম, এ, ওহাব উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৩ জন, ভান্ডারীগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২ জন, কালীপ্রসাদ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২ জন, চিৎলিয়া জনকল্যাণ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২ জন, মাধবপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১ জন ও আহমদ ইকবাল মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১ জন শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ লাভ করেছে।
কমলগঞ্জ উপজেলায় শতভাগ পাস করেছে ২টি বিদ্যালয়। বিদ্যালয়গুলো হচ্ছে-বিএএফ শাহীন কলেজ, ও আব্দুল মছব্বির একাডেমী।
এদিকে বাংলাদেশ মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত দাখিল পরীক্ষায় কমলগঞ্জ উপজেলার ৬টি মাদ্রাসা থেকে ৩৯১ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ৩৪১ জন। পাসের হার শতকরা ৮৫.৪৬ ভাগ। এর মধ্যে শতভাগ উত্তীর্ণ হয়েছে আহমদনগর দাখিল মাদ্রাসা ও বড়চেগ দাখিল মাদ্রাসা। কমলগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মো. জাহাঙ্গীর আলম এই সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
শমশেরনগর বিএএফ শাহীন কলেজ : সিলেট শিক্ষাবোর্ডে ৬ষ্ঠ তম স্থান লাভ

এবারের এসএসসি পরীক্ষায় সম্মিলিত মেধা তালিকায় মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর বিএএফ শাহীন কলেজ ৬ষ্ঠ তম স্থান লাভ করেছে। এই কলেজ থেকে ৯৯ জন শিক্ষার্থীর সবাই পাস হয়েছে। এর মধ্যে ৪৬টি জিপিএ-৫ পেয়েছে।

কমলগঞ্জে ২টি বিদ্যালয় শতভাগ পাস করেছে

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষায় ২টি বিদ্যালয় শতভাগ পাস করেছে। বিদ্যালয়গুলো হচ্ছে-বিএএফ শাহীন কলেজ ও আব্দুল মছব্বির একাডেমী। ৪৬টি জিপিএ-৫ সহ বিএএফ শাহীন কলেজে ৯৯ জন ও আব্দুল মছব্বির একাডেমী ৩৪ জন পরীক্ষার্থীর সবাই পাস করেছেন। ২টি বিদ্যালয়ে শতভাগ পাস করায় বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের মধ্যে বয়ে গেছে আনন্দের বন্যা।

কমলগঞ্জে কুমড়াকাপন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল বিতরণ

Pic--Kamalgonj Kumrakapon GPS
কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌরসভার কুমড়াকাপন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল বিতরণ করা হয়েছে। শনিবার (৩০ মে) দুপুরে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে শিক্ষার্থীর মাঝে মিড ডে মিল’র খাবার পরিবেশন করেন কমলগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান।
কুমড়াকাপন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এসএমসি সভাপতি মো. সানোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে ও শিক্ষক মন্জুর আহমদ আজাদ মান্নার সঞ্চালনায় এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার নাফিউন নূর, কমলগঞ্জ পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি মিফতাউল ইসলাম উপরু, কমলগঞ্জ বহুমুখী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. তাজ উদ্দিন, সাংবাদিক প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ, বালিগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বীরেন্দ্র চন্দ, সমাজসেবক নজব উল্ল্যা। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সালেহা মাহমুদ, পিটিএ সভাপতি হাজী কামাল উদ্দিন, এসএমসি সদস্য সুলতান মনসুর সিদ্দেক, চেরাগ আলী প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকা, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, কুমড়াকাপন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত মিড ডে মিল ২০১২ সাল হতে অদ্যবধি চালু রেখেছে। এজন্য সিলেট বিভাগীয় পর্যায়ে দুই দুইবার এই বিদ্যালয়ের এসএমসি শ্রেষ্ঠ এসএমসি’র স্থান অধিকার করে। এছাড়া এই বিদ্যালয়ের বিভিন্ন কার্যক্রমের সফলতার স্বীকৃতিসরুপ বাংলাদেশেরে ১১টি স্কুলের মধ্যে সিলেট বিভাগের মধ্যে শুধু কুমড়াকাপন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে ২০১৩ সালে ইউনিসেফ কর্তৃক নির্বাচিত করে।

আদমপুরে যাবজ্জীবন সাজার আদেশপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট ॥
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুর বাজার এলাকা থেকে রশিদ মিয়া (৪৫) নামে যাবজ্জীবন সাজার আদেশপ্রাপ্ত এক আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার (৩০ মে) ভোরে তাকে গ্রেফতার করা হয়। রশিদ মিয়া উপজেলার আদমপুর ইউনিয়নের জাঙ্গারাই গ্রামের মৃত আইয়ুব আলীর ছেলে।
কমলগঞ্জ থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) জাকির হোসাইন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আদমপুর বাজারে অভিযান চালিয়ে রশিদকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, রশিদ সিআর মামলায় যাবজ্জীবন সাজার আদেশপ্রাপ্ত আসামি। এতোদিন তিনি আত্মগোপনে ছিলেন। গ্রেফতারকৃত রশিদ মিয়াকে শনিবার মৌলভীবাজার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

অনুমতি ছাড়া কোন ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবেন না সাংবাদিকরা

নিউজ ডেস্ক::
আগামীতে অনুমতি ছাড়া কোন ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবেন না সাংবাদিকরা। ভোটকেন্দ্রে দায়িত্বরত প্রিজাইডিং অফিসারের কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে সাংবাদিকদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে। অনুমতি পেলেও ৫ জনের বেশি সাংবাদিক একসঙ্গে কেন্দ্রে যেতে পারবেন না। যাওয়ার অনুমতি মিললেও ১০ মিনিটের বেশি ভোটকেন্দ্রে অবস্থান করা যাবে না। নিয়ম ভঙ্গ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সংসদের মাগুরা-১ আসনের উপ-নির্বাচন থেকে এ নীতি চালু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আগামীকাল শনিবার এই নির্বাচন হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইসি সচিবালয়ের সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, নির্বাচন কমিশন, রিটার্নিং অফিসার অথবা প্রিজাইডিং অফিসারের অনুমতি নিয়ে ভোটকেন্দ্রে সাংবাদিকরা প্রবেশ করতে পারবেন। অনুমতি ছাড়া ভোটকেন্দ্রে প্রবেশের সুযোগ নেই। এক্ষেত্রে ৫ জন করে সাংবাদিক সর্বোচ্চ ১০ মিনিটে কেন্দ্রে অবস্থান করতে পারবেন বলে কমিশন নির্দেশনা দিয়েছে। আগামীতে সব নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রে প্রবেশে সাংবাদিকদের এ ধরনের গাইডলাইন থাকতে পারে বলে জানান তিনি।

মোদি-কোহলিরা একই দিনে ঢাকায় পা রাখছেন

full_60976824_1432795489নিউজ ডেস্ক: আগামী ৬ জুন নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরে মিলেমিশে যাচ্ছে ক্রিকেট আর কূটনীতি! একটা দেশের প্রধানমন্ত্রী প্রথমবারের মতো প্রতিবেশী কোনও দেশে সফরে আসছেন– আর সে দিনই তাদের ক্রিকেট দল সে দেশে সিরিজ খেলতে পা রাখছে। এমন দৃষ্টান্ত শুধু দক্ষিণ এশিয়ায় কেন, গোটা দুনিয়াতেই বিরল।

আগামী জুন মাসের প্রথম শনিবার শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যে দুদিনের বাংলাদেশ সফরে আসছেন, দুদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে তা এদিনই আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হয়েছে।

যেটা কোনও সরকারই বিবৃতিতে বলেনি, তা হল ওই একই দিনে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে টেস্ট আর ওয়ান-ডে সিরিজ খেলতে কলকাতা থেকে ঢাকা এসে নামছে ভারতীয় দল। ফলে দিল্লি থেকে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ বিমান ঢাকায় অবতরণ করার একটু আগে-পরেই সেই একই শহরে এসে নামবে ভিরাট কোহলিদের বিমান। অর্থাৎ দেশের প্রধানমন্ত্রী আর দেশের ক্রিকেটাররা একই দিনে, একই সময়ে শুরু করবেন বাংলাদেশের মন জয় করার অভিযান!

ভারতীয় পার্লামেন্ট যতদিন না স্থল সীমান্ত চুক্তি অনুমোদন করছে অথবা তিস্তা চুক্তি নিয়ে ভারতে ঐকমত্য হচ্ছে– ততদিন তিনি যে বাংলাদেশ যেতে চান না, এটা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি অনেক আগেই স্পষ্ট করে দিয়েছিলেন। অবশেষে গত মাসে স্থলসীমান্ত চুক্তি নিয়ে ভারতে সব বাধা দূর হওয়ার পরই শুরু হয় তার বাংলাদেশ সফরের প্রস্তুতি- এবং আজ দুদেশের মধ্যে আলোচনাক্রমে ঘোষিত হল সফরের চূড়ান্ত দিনক্ষণ। কিন্তু এই তারিখ নিয়ে আলোচনারও একটা চমৎকার পটভূমি আছে।

আসলে শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে নরেন্দ্র মোদি যখন বাংলাদেশে যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন, তখন বাংলাদেশ সরকার ভারতকে জানায় জুন মাসটাই এর জন্য উপযুক্ত হবে– কারণ সে সময় শেখ হাসিনার কোনও বিদেশ সফরের পরিকল্পনা নেই। জুন মাসেও আবার দুটো তারিখ নিয়ে কথাবার্তা চলছিল। একটা মাসের গোড়ার দিকে আর অন্যটা মাসের শেষ দিকে।

কিন্তু জুনের ১৭/১৮ তারিখ নাগাদ আবার রমজান শুরু হয়ে যাবে, আর রোজার মাসে মুসলিম-গরিষ্ঠ একটা দেশে হাই-প্রোফাইল বিদেশি অতিথির আপ্যায়ন করাটা সব সময়ই বেশ সমস্যার – এই যুক্তিতে বাংলাদেশের পছন্দ ছিল জুনের প্রথম সপ্তাহটাই। কিন্তু এত কম সময়ের মধ্যে সফরের সব গ্রাউন্ডওয়ার্ক শেষ করা যাবে কি না, একটু সংশয় ছিল তা নিয়েই।

এরই মধ্যে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় খেয়াল করে, ঠিক একই সময় ভারতীয় ক্রিকেট দলও বাংলাদেশ সফরে যাচ্ছে। আর প্রতিবারের মতো কোনও দ্বিতীয় সারির অনভিজ্ঞ দল নয়, সব তারকাকে নিয়ে পূর্ণশক্তির ভারতীয় দলই সেখানে পাঠানো হচ্ছে। ব্যাস, এটা জানার পর নরেন্দ্র মোদির দফতর ৬ জুন তারিখটাকে ‘ফাইনাল’ করে ফেলার ব্যাপারে আর দ্বিতীয়বার ভাবেনি। কারণ একই দিনে ক্রিকেট আর কূটনীতিকে মিশিয়ে বাংলাদেশের মাটিতে ভারতের এমন চমৎকার বিজ্ঞাপন করার সুযোগ চট করে মিলবে না। এমন সুযোগ হাতছাড়া করার বান্দা অন্তত নরেন্দ্র মোদি নন।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড সূত্রে জানা যাচ্ছে, বাংলাদেশ সফরের জন্য স্কোয়াডে নির্বাচিত সব ক্রিকেটারকেই ৫ জুন কলকাতায় চলে আসতে বলা হয়েছে, যেটা আবার বর্তমান বোর্ড প্রেসিডেন্ট জগমোহন ডালমিয়ারও শহর। পরদিন ৬ জুন, পুরো ভারতীয় দল এক সাথেই রওনা দেবে ঢাকার পথে। এখন যে কথাবার্তা চলছে, তাতে সেই দলের ‘হাই পারফরম্যান্স ম্যানেজার’ বা ‘টিম ডিরেক্টর’ হিসেবে দেখা যেতে পারে ক্রিকেট লেজেন্ড সৌরভ গাঙ্গুলিকেও।

বঙ্গসন্তান সৌরভ বাংলাদেশে ‘ব্র্যান্ড ইন্ডিয়া’র সবচয়ে জনপ্রিয় অ্যাম্বাসাডরদের একজন, বাংলাদেশ ইতিহাসে তাদের যে প্রথম টেস্ট খেলেছিল তাতেও বিপক্ষ দলের নেতৃত্বে ছিলেন তিনি। সেই সৌরভ গাঙ্গুলি আর নরেন্দ্র মোদি একই দিনে যদি বাংলাদেশে নামেন, তাহলে শুধু মিরপুর বা ফতুল্লা নয় – কূটনীতির পিচেও ভারতের জন্য ব্যাটিংটা অনেক সহজ হয়ে যাবে, ৬ জুন তারিখটা চূড়ান্ত করার আগে দিল্লির এমন একটা ভাবনাও কিন্তু কাজ করেছে।

ভারত সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আজ তাদের বিবৃতিতে জানিয়েছে, বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে তারা যে কতটা গুরুত্ব দেন, এই সফর হবে তারই প্রমাণ। এই সফরে দুই প্রধানমন্ত্রী স্থল সীমান্ত চুক্তিতে চূড়ান্ত স্বাক্ষর করবেন। কানেক্টিভিটি এবং জ্বালানি খাতেও দুদেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি সমঝোতা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী মোদি ও হাসিনার মধ্যে দীর্ঘ আলোচনা তো হবেই, তা ছাড়া ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী দেখা করবেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গেও। সফরের দ্বিতীয় দিন, অর্থাৎ ৭ জুন নরেন্দ্র মোদি ঢাকার বঙ্গবন্ধু সম্মেলনে একটি সুধী সমাবেশেও ভাষণ দেবেন।

কিন্তু সফরের ভাঁজে ভাঁজে ক্রিকেটকেও গুঁজে দেওয়ার কোনও চেষ্টাই যে বাদ যাবে না- সেটাই এখনই চোখ বুজে লিখে দেওয়া যায়।

এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশ আজ

রেওয়াজ অনুযায়ী, শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান এবং মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের নিয়ে শনিবার সকাল ১০টায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল হস্তান্তর করবেন শিক্ষামন্ত্রী। এরপর সংবাদ সম্মেলনে ফলাফলের বিস্তারিত তুলে ধরবেন মন্ত্রী।

গত ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও বিএনপি-জামায়াত জোটের অবরোধ-হরতালের কারণে তা ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়। হরতালের কারণে পিছিয়ে যায় এসএসসির সবগুলো পরীক্ষা। শুক্র-শনিবারে নেওয়া হয় এসব পরীক্ষা। এসএসসির তত্ত্বীয় পরীক্ষা ১০ মার্চ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও তা শেষ হয় ৩ এপ্রিল।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ১৪ লাখ ৭৯ হাজার ২৬৬ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছেন। এরমধ্যে সাত লাখ ৩৩ হাজার ২২০ জন ছাত্র এবং ছয় লাখ ৯৯ হাজার ৫২৫ জন ছাত্রী। যে কোনো মোবাইল অপারেটর থেকে এসএমএস করে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল জানা যাবে।

এসএসসি লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৫ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠালে ফিরতি এসএমএসে ফল জানা যাবে।

এছাড়া শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইট http://www.educationboardresults.gov.bd থেকেও পরীক্ষার্থীরা ফল জানতে পারবেন।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো www.educationboardresults.gov.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে ফলাফল ডাউনলোড করতে পারবে।

৭ জুন কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেলপথ কাজের উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশ ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী

এম. মছব্বির আলী::
জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে পরিত্যাক্ত কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেল লাইনে পুনরায় ট্রেন চালুর প্রকল্প অনুমোদনের সংবাদে বড়লেখা, জুড়ী, কুলাউড়া ও সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলায় আনন্দের বন্যা বইছে। মঙ্গলবার রাত থেকে বড়লেখা পৌর শহরসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় আওয়ামীলীগ দলীয় কর্মী সমর্থক আনন্দ মিছিল অব্যাহত রেখেছে।

বুধবার রাতে উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর বাজারে অনুষ্ঠিত মিছিল পরবর্তী পথসভায় সভাপতিত্ব করেন ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আব্দুল খালেক। সম্পাদক আবুল হোসেন আলমের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন ইউনিয়ন আ’লীগ নেতা রফিক উদ্দিন আহমদ, আতিকুল ইসলাম মুক্তা, ইউপি যুবলীগ সভাপতি আলিম উদ্দিন, সম্পাদক কামাল হোসেন, ছাত্রলীগ নেতা জাকের হোসেন প্রমুখ।

২০০২ সালের ৭ জুলাই ঘনঘন দুর্ঘটনার অজুহাতে এ লাইনে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। রেল মন্ত্রী মুজিবুল হক বুধবার জাতীয় সংসদের হুইপ শাহাব উদ্দিনকে জানিয়েছেন, আগামী ৭ জুন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যৌথভাবে কুলাউড়া-শাহবাজপুর রেলপথ সংস্কার কাজের উদ্বোধন ঢাকায় করবেন।

সুত্র জানিয়েছে, মঙ্গলবার একনেকে ৬৭৮ কোটি টাকার এ প্রকল্প অনুমোদন হওয়ায় রাত সাড়ে ৮ টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও জাতীয় সংসদের সরকার দলীয় হুইপ শাহাব উদ্দিনকে অভিনন্দন জানিয়ে পৌর শহরে আনন্দ মিছিল বের হয়। মিছিল শেষে মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে জাতীয় সংসদের হুইপ শাহাব উদ্দিন এমপি বলেন, এ অঞ্চলের জনগনের বহুল প্রত্যাশিত রেল লাইনটি তৎকালীন বিএনপি সরকার বন্ধ করে দেয়। রেল লাইনটি একনেকে অনুমোদন হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে তার নির্বাচনী এলাকার জনগনের পক্ষ থেকে অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ জানান।

উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান আকবর আলী জানান, প্রায় পাঁচ বছর পূর্বে একনেকের এক বৈঠকে কুলাউড়া-শাহবাজপুর লাইনে ট্রেন চালুর প্রকল্প অনুমোদন হয়। এ খবরে তখন বড়লেখা, জুড়ী, কুলাউড়া ও বিয়ানীবাজার উপজেলার প্রায় ৭ লাখ মানুষ আনন্দ উল্লাস করেছিল। কিন্তু পরবর্তীতে প্রকল্প বাস্তবায়ন না হওয়ায় জনগনের আনন্দ নিরানন্দে পরিনত হয়। ট্রেন চালুর এবারের আনন্দ যেন ফিকে হয়ে না যায়। দ্রুততম সময়ের মধ্যে ট্রেন চালুর প্রকল্প যেন বাস্তবায়িত হয়।
কুলাউড়া রেলওয়ে শ্রমিকলীগ ২৭ মে বুধবার সন্ধ্যায় কুলাউড়ায় আনন্দ মিছিলের আয়োজন করে। আনন্দ মিছিলটি কুলাউড়া রেলওয়ে প্লাটফর্মসহ কুলাউড়া শহর প্রদক্ষিণ করে। মিছিলে শ্রমিকলীগ, রেল শ্রমিকলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও হোটেল শ্রমিকলীগের নেতা-কর্মীরা অংশ নেন। আনন্দ মিছিলে প্রধান অতিথি ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সংলাপ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক প্রভাষক সিপার উদ্দিন আহমদ।

মিছিলে অংশ নেন কুলাউড়া উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম আহবায়ক হোসেন মনসুর উদ্দিন, আওয়ামীলীগ নেতা তৈমুছ আলী, রেলওয়ে শ্রমিকলীগের সভাপতি নাজমুল হক, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম, কার্যকরী সভাপতি গেদু মিয়া চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল খালিক, হোটেল শ্রমিকলীগের সভাপতি মুজিবুর রহমান মুজিব ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল আহমদ প্রমুখ।