সদ্য সংবাদ

মাধবপুরে সংখ্যালঘুর বাড়ীতে হামলা ও ভাংচুর ॥ আতংকে বাড়ীর মহিলারা ঘর ছাড়া

pic-2

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে এক আওয়ামীলীগ নেতার ছেলে কর্তৃক সংখ্যালঘু পরিবারের বাড়ীতে হামলা ও ভাংচুর চালানো হয়। ভাংচুর করে তাদের প্রাণনাশের হুমকি দিলে তারা বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র চলে যায়। রোববার দুপুরে কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের ভান্ডারীগাঁও গ্রামের জিতেন মল্লিকের বাড়ীতে এ ঘটনা সংগঠিত হয়।
ভান্ডারীগাঁও গ্রামের জিতেন মল্লিক, তার ভাই স্বর্ণ ব্যবসায়ী নিতাই মল্লিক, মা ললিতা মল্লিক অভিযোগ করে বলেন, প্রতিবেশী দীপক মল্লিকের (৪৫) সাথে তাদের জমিসংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জের ধরে মাধবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি আসিদ আলীর ছেলে শাহ আলমের নেতৃত্বে ১০/১২জনের একটি সংঘবদ্ধ দল রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাদের পাকা বাথরুম ও টিনশেডের ঘর ভাংচুর করে।  এ সময় বাড়ীতে কোন পুরুষ ছিলো না। সন্ত্রাসী হামলার কারণে বাড়ীর মহিলারা প্রাণভয়ে বাড়ী ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নেয়। খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
মাধবপুর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মোতাহের হোসেন ও এলাকাবাসীর সাথে আলাপ করে জানা যায়, বিষয়টি নিয়ে এলাকায় কয়েকবার সালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে, যা এখনো বিচারাধীন রয়েছে।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শাহ আলমের সাথে কথা বললে তিনি হামলা ও ভাংচুরের সাথে তার জড়িত থাকার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, দীপক মল্লিকের পরিবারের সদস্যরাই এ ঘটনা ঘটিয়েছে এবং এ সময় তিনি ঘটঁনাস্থলের অদুরে উপস্থিত ছিলেন।
কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তদন্তক্রমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।