সদ্য সংবাদ

বিভাগ: জাতীয়

শীঘ্রই নবম ওয়েজবোর্ড ও সম্প্রচার আইন আসছে : তথ্য প্রতিমন্ত্রী

কমলকুঁড়ি ডেস্ক

2018-01-24--08_22_50

তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, ‘টিভি অনুষ্ঠানের মান উন্নয়নকেই সবার আগে বিবেচনা করতে হবে, সুপারিশকে নয়। বিটিভিসহ সকল টেলিভিশনই তা বজায় রাখলে দেশের গণমাধ্যমের উন্নয়ন হবে, উপকৃত হবে জাতি।’

মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের (ঢাবি) আর সি মজুমদার মিলনায়তনে ঢাবি’র টেলিভিশন, চলচ্চিত্র ও ফটোগ্রাফি বিভাগের ষষ্ঠ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি টিভি অনুষ্ঠানের সাথে সাথে চলচ্চিত্রে উন্নয়নের দিকেও আলাকপাত করেন। চলচ্চিত্র শিক্ষার্থীরাও যাতে সরকারি অনুদানে চলচ্চিত্র নির্মাণের সুযোগ পায়, তারানা সেজন্য প্রস্তাব উত্থাপনের প্রত্যয় ব্যক্ত করলে বিভাগের সকলে তাকে অভিনন্দন জানায়।

শীঘ্রই নবম ওয়েজবোর্ড ও সম্প্রচার আইন আসছে জানিয়ে তথ্য প্রতিমন্ত্রী সংবাদপত্রের বিষয়ে বলেন, ‘অষ্টম ওয়েজ বোর্ড রয়েছে। কিন্তু মালিক যারা আছেন, তারা কি সেই অষ্টম ওয়েজ বোর্ড বাস্তবায়ন করেছেন? সাংবাদিকরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সংবাদসংগ্রহ করে। তাদের প্রাপ্য বুঝিয়ে দিতে হবে।’

এসময় সাংবাদিকতায় শুদ্ধাচার প্রসঙ্গে তারানা হালিম বলেন, ‘সাংবাদিকতায় সুবচন ফিরিয়ে আনতে হবে। হাতে কলম থাকলেই সবকিছু লেখা যায় না। কলম দিয়ে শুধু সত্য লিখতে হবে, অর্ধসত্য নয়। সত্যই শক্তি, আর অর্ধসত্য ভয়াবহ এবং পরিত্যাজ্য।’

দেশের জন্য স্বপ্ন ও সংগ্রামকে উৎসাহিত করে প্রতিমন্ত্রী শিক্ষার্থীদের বলেন, ‘আমরা জীবনে চলার পথে ছোট ছোট অনেক গুলো যুদ্ধে হারি, কিন্তু আমাদের প্রত্যয়, আমরা বড় যুদ্ধে জিতব। স্বপ্ন বাস্তবায়নে হার মানবো না। কারণ, হার মানার অর্থ স্বপ্নের ইতি।’

বিভাগের চেয়ারপার্সন রিফ্ফাত ফেরদৌসের সভাপতিত্বে আলোচনায় সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম, টেলিভিশন, চলচ্চিত্র ও ফটোগ্রাফি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারপার্সন অধ্যাপক ড. এ জে এম শফিউল আলম ভূইয়া, একুশে টেলিভিশনের সিইও মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল এবং চলচ্চিত্র নির্মাতা সালাউদ্দিন জাকি সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে অংশ নেন।

অনুষ্ঠানশেষে বিভাগের স্টুডিও পরিদর্শন করেন তারানা হালিম। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আনন্দ শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা, কেককাটা ও ফিল্ম, স্কিনিং ও পুরষ্কার বিতরণ আয়োজন করেছে বিভাগটি।

১ফেব্রুয়ারি এসএসসি পরীক্ষা শুরু : বন্ধ থাকবে ফেসবুক ও টুইটার

কমলকুঁড়ি ডেস্ক :

images-1

১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হতে যাওয়া এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা চলাকালে ফেসবুক-টুইটারসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। অন্যান্য বছরের মতো এবারও সকালের পরীক্ষা ১০টায় এবং বিকেলের পরীক্ষা ২টা থেকে শুরু হবে। পরীক্ষা চলাকালে কেবল ওই ৩ ঘণ্টাই বন্ধ থাকবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো। মন্ত্রী মঙ্গলবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
তিনি বলেন, বিটিআরসিকে (বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ রেগুলেটরি কমিশন) একটা লিমিটেড টাইমের জন্য ফেসবুক বন্ধ রাখার অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দিয়েছি। কতক্ষণ বন্ধ থাকবে সে টাইমটা মেনশন করছি না, আলাপ করে সময়টা নির্ধারণ করা হবে। একেবারে বন্ধ তা নয় একটা লিমিটেড টাইমের জন্য বন্ধ রাখার কথা বলা হয়েছে।
ফেসবুক ছাড়া আরও অন্যান্য যোগাযোগ মাধ্যম আছে যেখানে প্রশ্ন ফাঁস হয়- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে নাহিদ বলেন, আমি ফেসবুক বলতে বুঝিয়েছি প্রযুক্তিগত বিষয়গুলো। আমি কেবল একটার নাম উল্লেখ করেছি। প্রযুক্তিগত যে সুযোগগুলো তারা (প্রশ্ন ফাঁসকারী) নেয় সেগুলো যাতে বন্ধ করা যায়। তারাও (বিটিআরসি) চিন্তা করছেন কী কী মাধ্যমে এটা হতে পারে। কীভাবে এগুলো বন্ধ করা যেতে পারে।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এটা লিমিটেড টাইমের জন্য হলে কেউ ক্ষতিগ্রস্ত হবেন না। দুই তিন ঘণ্টায় কিছু হবে না।
এরআগে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর তিনদিন আগে থেকে শুরু করে সব পরীক্ষা শেষ হওয়া পর্যন্ত দেশে সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে বলেও সিদ্ধান্ত নেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়।
আগামী ১ ফেব্র“য়ারি থেকে শুরু হচ্ছে চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষা। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিভিন্ন পরীক্ষা প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে সরকারকে।

থার্টিফাস্ট নাইটে সূর্যাস্তের পর অনুষ্ঠান নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কমলকুঁড়ি ডেস্ক
3222111
থার্টিফাস্ট নাইটে অনাকাঙ্খিত ঘটনা এড়াতে সূর্যাস্তের পর বাইরে কোনো অনুষ্ঠান করা যাবে না বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর ইস্কাটন গার্ডেনের পুলিশ কনভেনশন হলে ঢাকা মেট্রোপলিটন শ্যুটিং ক্লাবের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, ইংরেজী নতুন বর্ষ উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। এদিন কেউ যাতে অস্থিতিশীল পরিবেশে সৃষ্টি করতে না পারে সে বিষয়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সতর্ক আছে। তাছাড়া পুলিশের পক্ষ থেকে বেশ কিছু বিধি-নিষেধ আরোপ করা হয়েছে। তিনি বলেন, থার্টিফাস্ট নাইটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং গুলশানসহ বিভিন্ন এলাকায় কিছু লোক এক সঙ্গে হয়ে অযথা হৈচৈ করে। এবার যাতে কেউ খামাখা হট্টগোল করতে না পারে নিরাপত্তার স্বার্থেই সে বিষয়ে খেয়াল রাখা হবে। অতিরিক্ত আইজিপি (এপিবিএন) সিদ্দিকুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন পুলিশের আইজি একেএম শহীদুল হক, অতিরিক্ত আইজিপি জাভেদ পাটোয়ারী (এসবি), মোখলেসুর রহমান (প্রশাসন ও অপারেশন্স). ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া, বাংলাদেশ শ্যুটিং স্পোর্টস ফেডারেশনের সভাপতি নাজিমউদ্দিন চৌধুরী, বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের মহাসচিব শাহেদ রেজা প্রমুখ।

১৮শ কোটি টাকা ব্যয়ে ট্রেনের ১৫০ বগি ও ২০ ইঞ্জিন ক্রয় করতে যাচ্ছে সরকার

কমলকুঁড়ি রিপোর্ট

322211
বাংলাদেশের রেলওয়ে খাতকে আরো একধাপ এগিয়ে নিতে ১৫০টি বগি ও ২০টি ইঞ্জিন কিনছে সরকার। এজন্য ব্যয় হবে ১৮শ কোটি টাকা। দক্ষিণ কোরিয়া থেকে এগুলো কেনা হবে। মঙ্গলবার রাজধানীর শেরে বাংলানগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় এ সংক্রান্ত প্রকল্পটি অনুমোদন দেয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা। সভায় এটিসহ ১৬ হাজার ১০ কোটি ২৪ লাখ টাকা ব্যয়ে মোট ১৬টি প্রকল্পের চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়। এর মধ্যে প্রকল্প সাহায্য ৩ হাজার ৮৩৯ কোটি টাকা এবং বাকিটা সরকারি তহবিল (জিওবি) থেকে মেটানো হবে। একনেক সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল ব্রিফ করেন। তিনি বলেন, আজকের সভায় ১৬টি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এতে মোট ব্যয় হবে ১৬ হাজার ১০ কোটি ২৪ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি অর্থায়ন থেকে ব্যয় করা হবে ১১ হাজার ৮৭০ কোটি ৪৮ লাখ টাকা এবং সংস্থার নিজস্ব অর্থায়নে ব্যয় হবে ৩০০ কোটি ৩৪ লাখ টাকা। এছাড়া প্রকল্প সাহায্য থেকে আসবে ৩ হাজার ৮৩৯ কোটি ৪২ লাখ টাকা।

জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ফি কমাল সরকার

25530369_916466548511295_1552380450_o

নিউজ ডেস্ক:: জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ফি কমাল সরকার। সোমবার নিবন্ধন ফি কমিয়ে পুনর্নির্ধারণ করে স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়েছে।

সরকার সর্বশেষ চলতি বছরের ২ মার্চ ‘জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন বিধিমালা, ২০১৭’ জারি করে। সেখানে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন ফি নির্ধারণ করে দেয়া হয়। সেই বিধিমালার ক্ষমতা বলেই এখন ফি পুনর্নির্ধারণ করা হয়েছে। জানা গেছে, নতুন নিয়মেও আগের মত জন্ম বা মৃত্যুর ৪৫ দিন পর্যন্ত জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন সনদ নিতে কোনো ফি দিতে হবে না। বিদেশে অবস্থানকারী বাংলাদেশের নাগরিকদের ক্ষেত্রে আগে এ ফি ছিল ২ মার্কিন ডলার, এখন তা কমিয়ে এক ডলার করা হয়েছে। জন্ম বা মৃত্যুর ৪৫ দিনের পর থেকে ৫ বছর পর্যন্ত কোনো ব্যক্তির জন্ম বা মৃত্যু নিবন্ধন ফি ২৫ টাকা। আগে এই ফি ছিল ১০০ টাকা। বিদেশে আগে এ ফি ছিল ৪ ডলার, এখন এক ডলার। এছাড়া জন্ম বা মৃত্যুর ৫ বছর পর যেকোনো সময় পর্যন্ত ব্যক্তির জন্ম বা মৃত্যুর নিবন্ধন ফি ৫০ টাকা। আগে ১০ বছর পর্যন্ত এই ফি ছিল ২০০ টাকা। আগে জন্ম বা মৃত্যুর ১০ বছরের পর থেকে নিবন্ধন ফি ছিল ৫০০ টাকা। এখন এটা নেই। বিদেশে এক্ষেত্রে ফি ছিল ১০ ডলার। জন্ম তারিখ সংশোধনের জন্য আবেদন ফি এখন ১০০ টাকা। জন্ম তারিখ ছাড়া নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, ঠিকানা ইত্যাদি অন্যান্য তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন ফি ৫০ টাকা। বিদেশের ক্ষেত্রে জন্ম তারিখ সংশোধনে ২ ডলার ও অন্যান্য তথ্য সংশোধনে ফি এক ডলার। আগে যেকোনো তথ্য সংশোধন ফি ছিল ৫০০ টাকা। বিদেশে এই ফি ছিল ১০ ডলার। বর্তমানে বাংলা ও ইংরেজি উভয় ভাষায় মূল সনদ বা তথ্য সংশোধনে পর সনদের কপি সরবরাহে কোনো ফি দিতে হবে না। আগে এক্ষেত্রে ১০০ টাকা ফি দিতে হত। বিদেশে এই ফি ছিল ২ ডলার। বাংলা ও ইংরেজি সনদের নকল সরবরাহে আগে ১০০ টাকা লাগলেও এখন লাগবে ৫০ টাকা। বিদেশে আগে এই ফি ছিল ২ ডলার, যা এখন এক ডলার।

সংসদ সদস্য গোলাম মোস্তফা আহমেদ আর নেই

1513659134

 কমলকুঁড়ি রিপোর্ট :

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য গোলাম মোস্তফা আহমেদ মারা গেছেন । আজ মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) সকালে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে  চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন গোলাম মোস্তফার ভাতিজা রিপন। তিনি জানান, সুন্দরগঞ্জের চণ্ডিপুর ইউনিয়নের নিজ গ্রামে মরহুম গোলাম মোস্তফাকে দাফন করা হবে। তবে কখন ও কবে তাকে দাফন করা হবে সে বিষয়ে তিনি কিছু জানাননি। পারিবারিকভাবে সিদ্ধান্ত নেয়ার পর এমপি মোস্তফার দাফনের সময় জানানো হবে বলে জানান রিপন।  এরআগে, ২০১৬ সালের শেষ দিন ৩১ ডিসেম্বর সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় নিজ বাড়িতে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান গাইবান্ধা-১ আসনের সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন। এমপি লিটনের মৃত্যুর পর ওই আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। ওই আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পান সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা আহমেদ। এরপর ২২ মার্চের উপনির্বাচনে জয়ী হন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ১৮ নভেম্বর বিকাল সাড়ে পাঁচটায় বঙ্গবন্ধু সেতুর টাঙ্গাইলের নাটিয়াপাড়া এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় এমপি গোলাম মোস্তফাসহ চারজন গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে এমপি গোলাম মোস্তফার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়। আহতের এক মাস পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

বিজয় দিবসে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বেহেস্ত কামনা, আটক ১

2017-12-17--08_02_19

টাঙ্গাইল :

বিজয় দিবসে একাত্তরের শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বেহেস্ত কামনা করে প্রার্থনা করার ঘটনায় টাঙ্গাইলের গোপালপুর কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ড. ফায়জুল আমীর সরকারকে পুলিশ আটক করেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়ে শনিবার সকাল আটটার দিকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণের আগে একাত্তরের শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়ার আয়োজন করা হয়। উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত এ দোয়া অনুষ্ঠানে মোনাজাতে নেতৃত্ব দেন গোপালপুর কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ড. ফায়জুল আমীন সরকার।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ইউনুস ইসলাম তালুকদার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলরুবা শারমীন, ওসি হাসান আল মামুন, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মরিয়ম আক্তার মুক্তা, পৌর মেয়র রকিবুল হক ছানা, জেলা পরিষদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদের তালুকদার, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির টাঙ্গাইল জেলা শাখার আহ্বয়ক অ্যাডভোকেট কেএম আব্দুস সালাম, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুস সোবহান তুলাসহ আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী, সকল সরকারি কর্মকর্তা এবং মিডিয়া কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

দোয়া অনুষ্ঠানে অধ্যক্ষ ড. ফায়জুল আমীন সরকার বলেন, ‌‘হে আল্লাহ তুমি পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধু হত্যাকারি, যাদের ফাঁসি হয়েছে তাদের বেহেস্তো নসীব করো। হে আল্লাহ তুমি বিচারের পর তাদেরকে বেহেস্ত নসীব করো।’

দোয়া অনুষ্ঠানে তার এ ধরনের বক্তব্যে উপস্থিত সকলেই হতবাক হয়ে যান। উত্তেজনা দেখা দিলে উপস্থিত নেতারা সকলকে শান্ত করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলরুবা শারমীন জানান, দোয়া অনুষ্ঠানে এ ধরনের দুর্ভাগ্যজনক বক্তব্য শুনে তিনি নিজের কানকে প্রথমে বিশ্বাস করতে চান নি। ওসি হাসান আল মামুন বলেন, এমন ঘটনাটি সত্যিই হতবাক হওয়ার মতো। ঘটনার পর পরই তাকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলা নেওয়া হবে।

উপজেলা চেয়ারম্যান ইউনুস ইসলাম তালুকদার জানান, গ্রেনেড হামলা মামলার প্রধান তিন আসামির বাড়ি গোপালপুরে। গোপালপুরের দুই জঙ্গি সম্প্রতি ক্রস ফায়ারে মারা গেছে। অধ্যক্ষ ড. ফায়জুলের মতো মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী মানুষ, যারা জামায়াত-শিবিরের সঙ্গে যুক্ত ছিল তাদের মুখ থেকে এমন কথা বের হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। আমরা তার কঠিন শাস্তি চাই। সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এবং গোপালপুর কামিল মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুস সোবহান তুলা জানান, মুখ ফসকে হয়তো তিনি একথা বলেছেন। তবে তাকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হবে।

 সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল

আজ মহান বিজয় ও জাতীয় দিবস : বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহন

Untitled-1-copy-3-300x185-1

কমলকু্ঁড়ি রিপোর্ট:

আজ ১৬ই ডিসেম্বর। মহান বিজয় ও জাতীয় দিবস। বাঙালির বিজয়ের দিন। ১৯৭১ সালে দীর্ঘ নয় মাসের রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদের আত্মত্যাগ আর দুই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে এই দিনে বাঙালি জাতি ছিনিয়ে আনে বিজয়ের লাল সূর্য। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী এদিন আত্মসমর্পণ করে মুক্তিকামী মানুষের কাছে। বিজয়ের ৪৬তম বার্ষিকীতে আজ পুরো জাতি পরম শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় স্মরণ করবে মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী লাখো শহীদকে।

যাদের জীবন উৎসর্গে আমরা পেয়েছি স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। দিবসটি উপলক্ষে সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে পালিত হবে নানা কর্মসূচি। মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বাণী দিয়েছেন।

আজ প্রত্যুষে ৩১ বার তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে দিবসটির সূচনা হবে। দিবসটি উপলক্ষে সকালে সারা দেশের সব সরকারি, বেসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পালিত হবে নানা কর্মসূচি।

 আজ ভোরে জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করবেন প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পর্যায়ক্রমে বীরশ্রেষ্ঠ পরিবার, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ, বাংলাদেশে অবস্থিত বিদেশি কূটনীতিকবৃন্দ, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনসহ সর্বস্তরের জনগণ পুষ্পস্তবক অর্পণ করে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন।

সকাল ১০টায় তেজগাঁও পুরাতন বিমানবন্দরে জাতীয় প্যারেড স্কয়ারে সম্মিলিত বাহিনীর বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ এবং বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম ভিত্তিক যান্ত্রিক বহর প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ করবেন। প্রধানমন্ত্রীও কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন।

বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, জাসদ, সিপিবি, ওয়ার্কার্স পার্টি, গণফোরামসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলা একাডেমি, শিল্পকলা একাডেমি, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান রাজধানীসহ সারা দেশে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে দিবসটি উদযাপন করবে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকালে জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ, দোয়া, মিলাদ মাহফিল, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

আওয়ামী লীগের কর্মসূচি: আওয়ামী লীগ তিন দিনব্যাপী বিস্তারিত কর্মসূচি পালন করবে। আজ বিজয় দিবসে সূর্যোদয় ক্ষণে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়, বঙ্গবন্ধু ভবন ও দেশব্যাপী সংগঠনের কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে।

সকাল ৬টা ৩৪ মিনিটে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন করা হবে। সকাল ৮টায় বঙ্গবন্ধু ভবনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে।

 এ ছাড়া টুঙ্গিপাড়ায় চিরনিদ্রায় শায়িত বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে সকাল ১০টায় শ্রদ্ধা নিবেদন, জিয়ারত, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। এদিকে আজ বিজয় দিবসে রাজধানীতে বিজয় শোভাযাত্রা করবে আওয়ামী লীগ।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও বিজয় দিবস উপলক্ষে আগামীকাল (১৭ই ডিসেম্বর) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা। এতে সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিজয় দিবস উপলক্ষে ১৮ই ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টায় ধানমন্ডিস্থ রবীন্দ্র সরোবরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে।

এবার মিলবে বজ্রপাতের পূর্বাভাস

কমলকুঁড়ি ডেস্ক

hanging11463561544 ভূমিকম্পের মতো বজ্রপাতেরও আগাম আভাস পাওয়ার ব্যবস্থা দেশে এখনো নেই। তবে আবহাওয়া অধিদপ্তর এবার দেশের আটটি স্থানে এমন যন্ত্র বসাচ্ছে, যার মাধ্যমে বজ্রপাতের পূর্বাভাস দেওয়া যাবে। বজ্রপাতকে দুর্যোগ হিসেবে সরকারি স্বীকৃতির পর এই পদক্ষেপ এল।

আবহাওয়া বিভাগ বলছে, এই প্রযুক্তি আমেরিকা ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশে ইতিমধ্যে সুফল বয়ে এনেছে। তবে জলবায়ু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বজ্রপাতের ক্ষয়ক্ষতি কমাতে যন্ত্রটি কতটা ভূমিকা রাখবে, তা এর কার্যকারিতা না দেখে বলা সম্ভব নয়।

জানতে চাইলে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মসূচি-১) মো. মোহসীন বলেন, বজ্রপাত এখন দেশের নতুন দুর্যোগ। সরকার বিষয়টি খুব গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে। বজ্রপাতে জানমালের ক্ষয়ক্ষতি কমাতে দেশের আটটি স্থানে সেন্সর স্থাপনের প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। সেন্সরগুলোতে ধারণ করা তথ্য-উপাত্ত নিয়ে বজ্রপাতের পূর্বাভাস তৈরি করা হবে। এ ছাড়া তালগাছ বজ্রপাত নিরোধক হওয়ায় সারা দেশে এই গাছের ১০ লাখ চারা রোপণের কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে।

প্রকল্প–সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রকল্পটি হাতে নিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। এতে মোট ব্যয় হবে ১৭ কোটি টাকা। এর আওতায় ঢাকার আগারগাঁওয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তরের প্রধান কার্যালয় ছাড়াও ময়মনসিংহ, সিলেট, পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া, নওগাঁর বদলগাছি, খুলনার কয়রা, পটুয়াখালীর পুরোনো আবহাওয়া কার্যালয় এবং চট্টগ্রামে সেন্সর বসানো হচ্ছে। এসব যন্ত্র যুক্তরাষ্ট্র থেকে কেনা হয়েছে। সেগুলো আওতাভুক্ত এলাকার বজ্রপাত ও বিদ্যুৎ চমকানোর সমস্ত তথ্য ধারণ করে রাখবে। সেগুলো পর্যবেক্ষণ ও যাচাই করে বজ্রপাতের আগাম সতর্কবার্তা দেওয়া সম্ভব হবে। আবহাওয়া অধিদপ্তর প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে।

আবহাওয়া বিভাগ বলছে, ভূমিকম্পের মতো বজ্রপাতেরও পূর্বাভাস দেওয়ার সক্ষমতা তাদের নেই। এত দিন আকাশে মেঘের আনাগোনা থেকে কেবল বজ্রঝড়ের আভাস দেওয়া হতো। কিন্তু বজ্রঝড় থেকে কখন বজ্রপাত হবে তা জানা কঠিন। ফলে প্রতিবছর দেশে বজ্রপাতে বহু প্রাণহানি হচ্ছে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের হিসাবে, ২০১৫ সালে বজ্রপাতে মারা যায় ২১৯ জন এবং চলতি বছরে এ পর্যন্ত ২৪৭ জনের প্রাণহানি হয়েছে। মাঝে ২০১৬ সালে এ সংখ্যা ছিল আরও বেশি; ৩৮০ জন। ২০১৬ সালেই বজ্রপাতকে নতুন দুর্যোগ হিসেবে আওতাভুক্ত করে সরকার। এরপরই কেবল বজ্রপাতে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের নামসহ বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহে রাখা হচ্ছে।

দুর্যোগ নিয়ে কাজ করে, এমন প্রতিষ্ঠানগুলোর তথ্য-উপাত্ত ঘেঁটে দেখা যায়, ২০১১ সালের পর থেকে দেশে বজ্রপাতের আধিক্য বাড়তে শুরু করে। সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ে প্রাণহানির সংখ্যা। বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্যের ভিত্তিতে বেসরকারি প্রতিষ্ঠান দুর্যোগ ফোরামের তৈরি এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৩ সালে দেশে বজ্রপাতে মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ২৮৫ জন। ২০১২ সালে মারা যায় ২০১ জন। ২০১১ সালে তা ছিল ছিল আরও কম (১৭৯ জন)। অর্থাৎ প্রায় প্রতিবছরই বজ্রপাতে প্রাণহানির সংখ্যা বাড়ছে। আগে সাধারণত এপ্রিল-জুলাই মাসে বজ্রপাত হতো। গত পাঁচ বছরে এই অবস্থা বদলে গেছে। বিশেষ করে গত দু-তিন বছর জানুয়ারি মাসেও বজ্রপাতের ঘটনা ঘটছে। জলবায়ু পরিবর্তন ও উষ্ণতা বৃদ্ধির কারণে এমনটি হচ্ছে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মজিদুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা যে ডিভাইস বসাচ্ছি, তা সার্বক্ষণিক কার্যকর থাকবে। তা সক্রিয় করার পর আমরা আওতাভুক্ত এলাকায় বজ্রপাত ও বিদ্যুৎ চমকানোর মাত্রা আগাম জেনে যাব।’ এই সেন্সরের মাধ্যমে সংগৃহীত তথ্যের ভিত্তিতে ১০-১৫ মিনিট আগে লোকজনকে সতর্ক করা সম্ভব হলেও জানমালের ক্ষয়ক্ষতি অনেক কমে আসবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ডিভাইসগুলো এরই মধ্যে স্থাপনের কাজ চলছে। আগামী জুন পর্যন্ত আমাদের কার্যসীমা নির্ধারিত আছে। কিন্তু আশা করি তার আগেই আমরা এটা করে ফেলতে পারব।’ আমেরিকা ও ইউরোপের দেশগুলোর আবহাওয়া বিভাগ এমন সেন্সরের সুফল পাচ্ছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

তবে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কোস্টাল স্টাডিজ অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান হাফিজ আশরাফুল হক বলেন, ‘যন্ত্রটি চালুর পরই আমরা এর সুফল কতটা পাচ্ছি বুঝতে পারব। আর তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয় লোকজনকে মুঠোফোনে খুদে বার্তা দিয়ে যদি আগাম সতর্ক করা যায়, তাহলে এই প্রযুক্তির সুফল পাওয়া গেলেও যেতে পারে। তবে আমাদের আবহাওয়া অধিদপ্তরের আরও আধুনিকায়ন দরকার। সে ক্ষেত্রে বজ্রপাতের তথ্য সংগ্রহকারী সেন্সর সংযোজনকে একটি ধাপ বলা যায়।’ সূত্র: প্রথম আলো

১৮ ডিসেম্বর সারাদেশে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি

কমলকুঁড়ি ডেস্ক রিপোর্ট :

21বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তার ছেলে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ দলীয় নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে ‘মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি’ করার প্রতিবাদে আগামী ১৮ ডিসেম্বর ঢাকাসহ সারা দেশে কর্মসূচি পালন করবে বিএনপি। এর আগে আজ শুক্রবার সকালে রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে এই কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্তের কথা জানান বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।